লক্ষ্য বাংলা জয়ের! কর্মীদের উদ্দেশ্যে নতুন বছরের হোম টাস্ক বেঁধে দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে একাধিক নেতা-নেত্রী দলবদল করেছে । বাংলা সফরে এসেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ৷ ঘনঘন বৈঠকে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার রণনীতিও নির্ধারিত হচ্ছে। কিন্তু এত প্রস্তুতি নিলেও বুথস্তরে সংগঠন না থাকলে, আসল পরীক্ষায় ডাহা ফেল করতে হবে বিজেপিকে, এই সারসত্যটা ভালই বোঝেন বিজেপির প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ । তাই শনিবার রাতে নিউটাউনের হোটেলে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে নেতা-কর্মীদের হোম টাস্ক বেঁধে দিলেন শাহ। ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত রাজ্য নেতাদের হোম টাস্ক দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷

এখন সবচেয়ে জরুরি কাজ বুথস্তরে সংগঠন মজবুত করা। ভোটার তালিকা বাছাই করতে হবে৷ তার জন্য কর্মীদের বাড়ি-বাড়ি যেতে হবে। প্রতি বুথে পাঁচটি করে দেওয়াল লিখন করতে হবে। রাজ্যে আগামীদিনে শুভেন্দুকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে। নির্বাচনী কমিটির গুরুত্বপূর্ণ দ্বায়িত্বও পেতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী ।২০১৪ সালের আগে উত্তরপ্রদেশের মাটি কামড়ে পড়েছিলেন অমিত শাহ। সংগঠনের উপর ভর করে ২০১৪ তে একের পর এক নির্বাচনী বৈতরণী পার করছে বিজেপি।

 

সেই নীল নকশা অনুযায়ী রাজ্যের নেতাদের হোমটাস্ক বরাদ্দ হচ্ছে। টাস্ক কতটা করছেন কর্মীরা , সেদিকে কড়া নজর থাকছে কেন্দ্রীয় নেতাদেরও। জানুযারিতে ফের তিনদিনের বঙ্গসফরে আসবেন অমিত শাহ এবং জেপি নাড্ডা।

শাহরুখ-রানীর মেয়ে ছোট্ট অঞ্জলী সুপার সেক্সি লুকে ঝড় তুলেছে নেটদুনিয়ায়

২০১৭ সাল থেকে বাংলার পরিস্থিতির কী পরিবর্তন হয়েছে সেই নিয়ে পর্যালোচনা করতে বিজেপির রাজ্য নেতৃত্বের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে কৈলাস বিজয়বর্গীয়, দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, শিবপ্রকাশ, স্বপন দাসগুপ্তরা যেমন ছিলেন তেমনই ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতা মনসুখ মান্ডিয়া, সঞ্জীব বালিয়ান, উত্তর প্রদেশের ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্য।