মৃত মাকে জাগিয়ে তুলতে পারেনি শিশুটি আর! এবার সেই একরত্তি শিশুর সাহায্যে এগিয়ে এলেন শাহরুখ খান..

গত কয়েকদিন আগে একটি ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়া সহ টিভির পর্দায় ফুটে উঠে যেটি দেখে রীতিমতো সকলের দেহ কাটা উঠেছিল। এই ভিডিওটিতে দেখতে পাওয়া যায় স্টেশনের প্লাটফর্মের শুয়ে আছে এক শিশুর মৃত মা, শিশুটি চাদর টেনে বারবার তার মাকে ডেকে তোলার চেষ্টা করছে। কিন্তু মায়ের নিথর দেহ কোন সাড়া দিচ্ছে না, এই মর্মান্তিক দৃশ্যটি গোটা সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়ে যায়। হয়তো বিশ্বের মানুষ কোনোদিনই ভুলতে পারবে না এরকম এক করুণ দৃশ্যকে। সেই ভিডিওটি দেখে সকলের মনে একবার একবার এই চিন্তা নিশ্চয়ই এসেছে যে এবার এই মা হারা শিশুটির কী হবে?

তবে এবার যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেটি কিছুটা হলেও শিশুটির দুঃখ কম করতে সক্ষম হবে কারণ এবার এই শিশুটির সাহায্যের জন্য হাত বাড়ালেন বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খান। এ বিষয়ে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদনে জানতে পারা যায় বলিউড কিং খান শাহরুখ খানের সংস্থা মীর সংস্থা এই শিশুটির সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছে। যদিও এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ভাইরাল হয়ে যাবার পর থেকে অনেকেই এই শিশুটির সাহায্যে এগিয়ে এসেছিলেন। এমন কী অনেক নেতা-মন্ত্রীরাও এই শিশুটির সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছিলেন।

এই বিষয়ে শাহরুখ খান জানান মা-বাবা হারানোর যন্ত্রণা কী তা তিনি বোঝেন তাই তিনি শিশুটির সঙ্গে সব সময় সমর্থনে থাকবেন।যদিও ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যাওয়ার পর থেকেই অনেকেই এই শিশুটির পরিচয় খুঁজে বের করতে এগিয়ে আসেন, আর তারপর যে খবর প্রকাশ্যে আসে সেখানে জানতে পারা যায়, এই শিশুটির নাম রহমত, তার মায়ের নাম ছিল আরভিনা খাতুন, এক্ষেত্রে মায়ের মৃত্যুর কারণ হিসেবে জানতে পারা যায় অনাহার। অর্থাৎ অনাহারে ভুগেই মৃত্যু হয়েছে মায়ের, এমন কী না খেয়েই ছিল সেই শিশুটি ও।

অন্যদিকে শাহরুখ খানের সংস্থা মীর ফাউন্ডেশন এর তরফ থেকে এ বিষয়ে একটি টুইট করা হয় যেখানে তারা লিখেন যারা এই শিশুটিকে তাদের কাছে পৌঁছাতে সাহায্য করেছেন তাদের সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ। বর্তমানে আমরা শিশুটির দেখ ভাল করছি, আর সে এখন একরত্তি তার দাদুর কাছে রয়েছে।তবে এইভাবে অনাহারে এক মর্মান্তিক ঘটনা প্রকাশের আসার পর থেকেই এই বিষয় নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তার পাশাপাশি এই বিষয় নিয়ে কেন্দ্র কতটা পরিমানে দরিদ্রদের পাশে দাঁড়াচ্ছেন তা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

 

Related Articles

Close