কেমন রয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর বর্তমান অবস্থা? কী বলছেন ডাক্তারেরা, বিস্তারিত জানতে

বাঁ পায়ের গোড়ালির হাড়ে আঘাত গুরুতর। গতকাল নন্দীগ্রামে গিয়ে ভালো আঘাত পেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পায়ের পাতা, ডান হাত, গলা এবং ডান কাঁধে পেয়েছেন চোট। বাঙুর হাসপাতালে এমআরআই ( MRI)  করা হয়েছে৷ তারপর  ফের এসএসকেএম হাসপাতালে আনা হিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷ মেডিক্যাল বুলেটিনে একথা জানিয়েছেন এসএসকেএম হাসপাতালের চিকিৎসক অধিকর্তা  মণিময় বন্দ্যোপাধ্যয়। জানা যাচ্ছে, মুখ্যমন্ত্রীর পায়ে প্লাস্টার করা হয়েছে।আপাতত তাঁকে ৪৮ ঘণ্টার জন্য  পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে ।

বৃহস্পতিবার ফের তাঁর সিটি স্ক্যান করা হবে বলে জানা যাচ্ছে৷ গতকাল নন্দীগ্রামে পড়ে গিয়ে আঘাত পাওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে  গ্রিন করিডোর করে নিয়ে আসা হয় এসএসকেএম হসপিটালে। তারপর  তাঁকে উডবার্ন ওয়ার্ডের সাড়ে ১২ নম্বর কেবিনে ভর্তি করা হয়।এসএসকেএম-এ একাধিক পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়৷ প্রাথমিক চিকিৎসার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর এমআরআই করানো হবে। তার জন্য  অ্যাম্বুল্যান্সে করে নিয়ে যাওয়া হয় বাঙুর ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস-এ। এমআরআই করানোর পর  রাত ১টা নাগাদ ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে  এসএসকেএম হাসপাতালের উডবার্ন ওয়ার্ডে আনা হয়৷

এমআরআই ও অন্যান্য শারীরিক পরীক্ষার রিপোর্ট খতিয়ে দেখা হয়৷ তার পর চিকিৎসক মণিময়  বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘পরীক্ষার প্রাথমিক রিপোর্টে ইঙ্গিত, বাঁ পায়ের গোড়ালি ও পায়ের পাতার হাড়ে গুরুতর (সিভিয়ার) চোট রয়েছে। রক্ত জমেছে। এ ছাড়া চোট রয়েছে ডান কাঁধ, ডান হাত ও গলায়।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘ঘটনার পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রী বুকে ব্যথা এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যা অনুভব করছেন। আগামী ২৪ ঘণ্টার জন্য তাঁকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।’’

“গ্র্যাজুয়েট ছেলে টোটো চালায়, কিংবা বেচে চপ”, ভাইরাল রুদ্রনীলের নতুন কবিতা

তাঁর চিকিৎসার জন্য একটি  মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে৷ বাঙুরে নিয়ে যাওয়ার আগে এসএসকেএম-এ এক্স রে এবং সিটি স্ক্যান করা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর। ব্যথা উপশমের ওষুধ দেওয়া হয়েছিল।  বাঁ পায়ের গোঁড়ালি ফুলে রয়েছে । গোঁড়ালি ও পায়ের পাতায় চোট পেয়েছেন মমতা। ডান কাঁধ আর কব্জিতে ব্যথা সেইসাথে শ্বাসকষ্ট রয়েছে। সবমিলিয়ে গতকালের ঘটনার জেরে একটা  ট্রমা কাজ করছে মুখ্যমন্ত্রীর । এমনটাই বলছেন চিকিৎসকরা।  আজ হতে পারে ইসিজি। সকালে তাঁকে চা বিস্কুট খেতে  দেওয়া হয়েছে। খালি পেটে বেশ কিছু রক্ত পরীক্ষাও করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে হাসপাতাল সূত্রে।

গতকাল নন্দীগ্রামে রেয়াপাড়ায় একটি মন্দিরে পুজো দিয়ে বেরানোর সময় ধাক্কাধাক্কিতে পায়ে চোট লাগে তাঁর। গতকাল নন্দীগ্রামে (Nandigram) তাঁর থাকার কথা ছিল। কিন্তু, প্রচারপর্ব শেষ না করেই  কলকাতায় ফিরতে হয় তৃণমূল নেত্রীকে।  বাঙুর ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেসে এমআরআই করা হয় তাঁর। তৃণমূল নেতা চিকিৎসক শান্তনু সেন প্রাথমিকভাবে জানিয়েছেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লিগামেন্টে আঘাত রয়েছে। তাঁর পায়ের পাতায় চিড় রয়েছে। সেই সাথে  সফট টিস্যু ইনজুরি আছে ।