দ্রুত বাড়ছে সমুদ্রের জলস্তর! সমুদ্রের মধ্যেই তলিয়ে যেতে পারে কলকাতা, মুম্বই সহ একাধিক শহর

বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে ব্যস্ত সারা পৃথিবী। বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশ করোনা মোকাবিলায় হার মেনে যাচ্ছে। ভারতও করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে এখনো পর্যন্ত। আর এই মহাসংকটের সময় আরেকটি দুঃসংবাদ পাওয়া গেল যা মানুষের ঘুম উড়িয়ে দেওয়ার মতন ঘটনা। যেখানে বিজ্ঞানীদের নানান রিসার্চের মাধ্যমে  একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উঠে এসেছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, পৃথিবীর তাপমাত্রা দিনদিন ক্রমশ বেড়ে যাচ্ছে এর ফলে সমুদ্রের জলস্তর বেড়ে যাচ্ছে পাল্লা দিয়ে।

একটি সমীক্ষায় স্পষ্টভাবে প্রমাণ পাওয়া গেছে যে,  প্রত্যাশার থেকে অনেক দ্রুত গতিতে সমুদ্রের জলস্তর বেড়ে যাচ্ছে।  সমীক্ষা অনুসারে 2100 সালে সমুদ্রের জলস্তর বাড়বে এক মিটার এবং 2300 সালে 5 মিটার বাড়বে। সিঙ্গাপুরের নানইয়াং টেকনোলজিক্যাল ইউনিভার্সিটি এবং আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ডারহাম বিশ্ববিদ্যালয়, জার্মানির পটসডাম ইনস্টিটিউট ফর ক্লাইমেট ইম্প্যাক্ট এর বিজ্ঞানীরা মিলে এই সমীক্ষা করেছেন। এবং তারা জানিয়েছেন বিশ্ব উষ্ণায়নের জন্য এই দুর্ঘটনা ঘটবে।

এর ফলে ভবিষ্যতে মানবসভ্যতা খুব সংকটের মুখে পড়তে পারে। এর আগেও বিজ্ঞানীরা বিষ্ণ উষ্ণায়ন দিন দিন বেড়ে যাওয়ার ফলে সতর্ক করে দিয়েছিলেন মানবজাতিদের। কিন্তু এখন বিজ্ঞানীরা দেখছেন এই বিশ্ব উষ্ণায়নের মাত্রা যত দিন যাচ্ছে তত বেড়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি এই বিশ্বউষ্ণায়ন এর ফলে আন্টার্টিকা এবং গ্রীনল্যান্ডের বরফ গলতে শুরু করছে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এর ফলে সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকা গুলি বড়ো সংকটের মুখে পড়তে পারে।

শুধু সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকাগুলিই নয় এমন কী ভারতের কলকাতা মুম্বাই এর মতোন শহর, আমেরিকার নিউইয়র্ক এবং সাংহাইয়ের মতন বড় বড় শহর গুলিও সংকটের মুখে পড়তে পারে।  শুধু তাই নয় এ নিয়ে বিজ্ঞানীদের আশঙ্কা সমুদ্র তীরবর্তী এলাকা গুলি জলের নিচে তলিয়ে যেতে পারে। এই বিশ্ব উষ্ণায়নকে 2 ডিগ্রী সেলসিয়াস এর ভিতরে যদি বেঁধে রাখতে না পারা যায় তাহলে আগামী দিনে ভয়ঙ্কর দিন দেখতে হতে পারে মানবসভ্যতা কে।