SBI-গ্রাহকদের জন্য বড় ঘোষণা! এবার গ্ৰাহকদের মিলবে এই বিশেষ সুবিধা..

দেশে করোনা সংক্রমণ রুখতে আগামী 14 এপ্রিল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকে জারি রয়েছে 21 দিনের লকডাউন। করোনা সংক্রমণ যাতে দেশে অধিক মাত্রাই ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য কেন্দ্র সরকার সহ রাজ্য সরকার গুলি একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করছে এ বিষয়ে। আর এরই মধ্যে আরো একটি খবর বেরিয়ে এলো দেশের সবচেয়ে বড় ব্যাঙ্ক স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া তরফ থেকে। যেখানে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে গ্রাহকদেরকে বাঁচাতে একটি নতুন পরিষেবা চালু করেছে।

যার মাধ্যমে গ্রাহকদেরকে আর ব্যাংকে আসতে হবেনা ব্যাংকের কাজ বাড়িতে বসেই অতি সহজেই করে নিতে পারবেন তারা।এমনকি খুব যদি প্রয়োজন হয় টাকার দরকার পড়ে তাহলে সে ক্ষেত্রেও ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের কে ব্যাঙ্ক আসার প্রয়োজন নেই বাড়িতেই তারা তাদের প্রয়োজনীয় টাকা পেয়ে যাবেন, অর্থাৎ ব্যাঙ্কের তরফ থেকে ডোর স্টেপ ডেলিভারি আয়োজিত করা হয়েছে সকল গ্রাহকদের জন্য।

অর্থাৎ এই মুহূর্তে স্টেট ব্যাংক তাদের গ্রাহকদেরকে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ব্যাঙ্কিং পরিষেবা প্রদান করে থাকছে। তবে বলে রাখি বর্তমানে এই পরিষেবাটি শুধুমাত্র প্রবীণ নাগরিক ও বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের জন্যই চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে আপনি যে পরিষেবাগুলি পেয়ে যাবেন সেগুলি হল টাকা তোলা,টাকা জমা দেওয়া, চেক দেওয়া, টার্ম ডিপোজিট অ্যাডভাইজার ডেলিভারি ও ড্রাফটের ডেলিভারিএর পাশাপাশি পেয়ে যাবেন কেওয়াইসি ডকুমেন্ট জমা দেওয়ার মত সুবিধা ও লাইভ সার্টিফিকেট জমা দেওয়ার ও সুবিধা।

আর এই পরিষেবার লাভ উঠাতে আপনাকে যেকোন ওয়ার্কিং দিনের মধ্যে সকাল নয়টা থেকে বিকেল চারটার মধ্যে একটি টোল ফ্রি নম্বর দেওয়া হয়েছে সেখানে এর জন্য আবেদন করতে হবে। উল্লেখ্য নম্বরটি হলো 1800111103। এজন্য হোম ব্রাঞ্চে রেজিস্ট্রেশন করাতে হবে।

প্রয়োজনীয় চার্জেস- তবে বলে রাখি এই ডোর স্টেপ ব্যাঙ্কিং পরিষেবাটি এখন কেবলমাত্র যেসব গ্রাহকদের কেওয়াইসি করা রয়েছে তাদের জন্যই প্রযোজ্য রয়েছে।আর এর জন্য যে প্রয়োজনীয় চার্জেস গুলি লাগছে সেটি হল non-financial লেনদেনের জন্য 60 টাকা ও জিএসটি লাগবে প্রত্যেক ভিজিটে তার আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে চার্জ ধার্য করা হবে 100 টাকা ও জিএসটি চার্জ লাগবে। এক্ষেত্রে টাকা জমা ও তোলা দেওয়ার জন্য প্রতিদিন কুড়ি হাজার টাকা সীমা ধার্য করা হয়েছে।আর এই পরিষেবার জন্য গ্রাহকদেরকে তাদের নিজস্ব হোম ব্রাঞ্চের পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে রেজিস্টার নম্বর সহ উপস্থিত থাকতে হবে। তবে বলে রাখি এক্ষেত্রে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যেটি হল জয়েন্ট অ্যাকাউন্ট হোল্ডারা কিন্তু এই পরিষেবা সুবিধা পাবেন না।

Related Articles

Back to top button