দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

SBI-এর তরফ থেকে জনধন অ্যাকাউন্টে টাকা তোলাতে জারি করা হল নতুন নিয়ম,এবার থেকে..

করোনা সংক্রমণ থেকে দেশকে বাঁচাতে লকডাউনের পথে  হেঁটেছে সরকার সরকার। এখনো পর্যন্ত দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া লকডাউন বাড়াতে বাধ্য হয় কেন্দ্র সরকার। ফলে 3 মে এর পর আরো দু সপ্তাহ বাড়লো লকডাউন। সবই ঠিক আছে কিন্তু লকডাউন এর ফলে গরীব খেটে খাওয়া মানুষদের অসুবিধার মুখে পড়তে হয়েছে।এই অবস্থায় তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রত্যেক মাসে জনধন অ্যাকাউন্টে 500 টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

3 মাস এই টাকা দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যেই অনেকেই টাকা পেয়ে গেছেন। কিন্তু এই টাকা তোলার ক্ষেত্রেও কিছু সর্তকতা অবলম্বন করা হয়েছে কারণ টাকা তোলার জন্য অযথা যাতে মানুষের ভিড় না হয়। এর জন্য স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া টাকা তোলার ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম জারি করেছে। ব্যাংকের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে একটি টাইমটেবিল বানানো হয়েছে। রুপে কার্ড বা ব্যাঙ্ক মিত্র কার্ড থাকলে আপনি যেকোন সময় এই টাকা এটিএম থেকে তুলতে পারেন।

এটিএম থেকে টাকা তোলার জন্য গ্রাহকদের অতিরিক্ত কোন চার্জ দিতে হবে না। এটিএম কার্ড বা ব্যাঙ্ক মিত্র কার্ড থেকে টাকা তোলার জন্য নির্দেশ দিচ্ছে ব্যাঙ্ক। এর কারণ হল যাতে ব্যাংকে বেশি জমায়েত না হয়। যদি কারো কাছে কার্ড না থাকে তাহলে ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে পারবেন।মে মাসের 11 তারিখের মধ্যে জনধন অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠাবে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু একসাথে যাতে সবাই ব্যাংকে ভিড় না করে তাই অ্যাকাউন্ট নাম্বার অনুসারে টাকা জমা পড়ছে। জনধন অ্যাকাউন্টে যেসব গ্রাহকদের অ্যাকাউন্টের শেষ নম্বর 0 বা 1 সেই সমস্ত অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের 4 মে টাকা জমা পড়বে। শেষে 2 বা 3 থাকলে 5 মে জমা পড়বে।

শেষে 4 বা 5 থাকলে তাদের অ্যাকাউন্টে 6 মে টাকা দেওয়া হবে। শেষে 6 বা 7 থাকলে তাদের অ্যাকাউন্টে 8 মে টাকা দেওয়া হবে। এবং অ্যাকাউন্টে শেষে যদি 8 বা 9 থাকে তাহলে 11 মে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকবে। এবার আপনার অ্যাকাউন্টে যে সময় টাকা জমা পড়ছে সেই টাইমটেবিল অনুযায়ী আপনি টাকা তুলতে পারবেন। আপনি যদি সেই টাইমটেবিল অনুযায়ী টাকা তুলতে না চান তাহলে 11 মে পর ব্যাংকে গিয়ে টাকা তুলতে পারবেন। টাকা তোলার সময় আপনাকে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সমস্ত কাজ করতে হবে। এই টাইমটেবিল শুধুমাত্র এই মাসের জন্যই এ কথা মনে রাখবেন।

Related Articles

Back to top button