বলেছিলেন অন্য দলে যোগ দেবেন না, ফেসবুকে মুছলেন সেই লাইন,আবারও বাড়ছে দলবদলের জল্পনা

ফেসবুকে পোস্ট করে রাজনৈতিক মহল থেকে বিদায় নিলেন আসানসোলের প্রাক্তন সংসদ বাবুল সুপ্রিয়। প্রথমে ফেসবুকে লিখেছিলেন তিনি তৃণমূল কংগ্রেস সিপিএম কোথাও যোগ দিচ্ছেন না। কিন্তু কয়েক ঘণ্টা যেতে না যেতেই বদলে গেল সেই পোস্ট‌। তারপরই রাজনৈতিক মহলে চরম জল্পনার সূত্রপাত হয় যে এবার এই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ফুল বদল করছেন? অবশ্য পরে তিনি জানান ওই অংশটি ভুলবশত মুছে গেছিল। তবে তিনি অন্য কোনো দলে যোগ দিচ্ছেন না।

শনিবার বিকেলে আসানসোলের প্রাক্তন সাংসদ এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তাঁর ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে বিজেপি থেকে বিদায় নেওয়ার কথা জানিয়েছেন। এর পাশাপাশি তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছেন। সোশ্যাল মিডিয়াতে তিনি লিখেছেন “অন্য কোনও দলে যাচ্ছি না। তৃণমূল, সিপিএম, কংগ্রেস কোথাও নয়। নিশ্চিন্ত করছি। কেউ ডাকেওনি আমাকে। আমি কোথাও যাচ্ছি না।” এর পাশাপাশি তিনি আরও লেখেন “আমি বরাবর এক দলেই বিশ্বাসী। বরাবর মোহন বাগানকে সমর্থন করেছি। একটাই দল করেছি, বিজেপি।”

বাবুল সুপ্রিয় প্রথমে যে পোস্টটি করেছিলেন

বাবুল সুপ্রিয় প্রথমে যে পোস্টটি করেছিলেন

আর কিছুসময়ের মধ্যেই এই পোস্ট থেকে কটা লাইন বাদ পড়ে। তারপর থেকেই জল্পনা দানা বাঁধতে শুরু করে যে এই প্রাক্তন মন্ত্রী কি এবার দলবদল করছেন? কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বদলের সময় বাবুল সুপ্রিয় এবং দেবশ্রী চৌধুরী মন্ত্রীর আসন থেকে বাদ পড়েন। এরপরই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সমবেদনা প্রকাশ করতে গিয়ে বলেছিলেন যে,“এখন বাবুল ওঁদের কাছে খারাপ হয়ে গেল?

তারপর থেকেই জল্পনা উঠতে শুরু করে যে এই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী কে জোড়া ফুল শিবিরে যোগদান করবেন। মন্ত্রিত্ব থেকে বাদ পড়ার পর বাবুল সুপ্রিয় ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তারপর থেকেই বিভিন্ন কারণে বিজেপি নেতৃত্বদের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব সৃষ্টি হয়। আর এবার হল দল ত্যাগ। বাবুল সুপ্রিয়র ফেসবুক পোস্ট থেকে দলবদল এর অংশটি বাদ পড়ার পর দলবদলের বিষয়টি চরম জল্পনার সৃষ্টি করে।

২০১৪ এবং ১৯ সালে আসানসোল কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে জয়ী হয়েছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। দুইবারই তিনি কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর আসন পান। পূর্ণ মন্ত্রিত্ব পাওয়ার আগেই তাকে সরিয়ে দেওয়া হল। এই নিয়ে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন সোশ্যাল মিডিয়াতে। আর এবার হল তার দল ত্যাগ। দল থেকে পরও কিন্তু তিনি জল্পনা বাড়ালেন ফুল বদলের।