এবার শহিদ জওয়ানদের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন ‘শিরডি সাই ট্রাস্ট’, পাঠাচ্ছে 2.51 কোটি টাকা।

কারো সন্তানের বয়স 4 তো কারো 6 বছর। আবার অনেকের বাড়িতেই রয়েছেন সন্তান সম্ভবা স্ত্রী। কিন্তু এই  সমস্ত পরিবার গুলির অবস্থা এখন খুবই শোচনীয়।বৃহস্পতিবার পুলওয়ামায় আত্মঘাতী বিস্ফোরণ কেড়ে নিয়েছে তাদের পরিবারের অত্যন্ত একজনক সদস্যকে। ভয়ানক এই জঙ্গি হামলায় শহীদ হয়েছেন কারও ছেলে, কারও বাবা,করো ভাই, তো আবার কারো স্বামী।স্বামী হারা স্ত্রী, সন্তান হারা বাবা-মা সবাই শোকে পাথর হয়ে গেছেন। ছেলে-মেয়ের পড়াশোনা চলবে কি করে? পরিবারে সংসার চালাবে কে? এই সমস্ত প্রশ্নের দিশাহারা হয়ে গেছেন পরিবারের সদস্যরা। তাদের চিন্তায় রাতের ঘুম উড়ে গেছে এখন। ঠিক এমনই এক পরিস্থিতিতে শহীদ জাওয়ানদের পরিবারের পাশে দাঁড়ালো মহারাষ্ট্রের “শিরডি সাই মন্দির”

সাই বাবার জাগ্রত মন্দির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘শিরডি ট্রাস্ট’ পুলওয়ামায় শহীদ হওয়া জাওয়ানদের পরিবারে পাশে দাঁড়াবেন। নিহত জাওয়ান দের পরিবারেকে মন্দির এর তরফ থেকে 2.51 কোটি টাকার অনুদান দেবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে। শহীদ জাওয়ানদের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন বলিউডের অন্যতম সেরা অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন। ভারতের দুই প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর ও বীরেন্দ্র শেহওয়াগ শহীদ জাওয়ানদের সন্তানদের সমস্ত পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছেন। পেমেন্ট এক সংস্থা ‘পেটিএম’ একটি বিশেষ ব্যবস্থা চালু করেছে। যেখানে পেটিএম এর মাধ্যমে গ্রাহকরা তাদের ইচ্ছেমতো শহীদ জাওয়ানদের পরিবারকে সাহায্য করতে পারে। হিন্দি সিনেমা উরির টিমও সেই সকল পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের কথা ঘোষণা করেছে। সতর্কতা থাকা সত্ত্বেও উপত্যকায় রোখা যায়নি ফিদয়ঁ হামলা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সিআরপিএফের কনভয়ে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা চালায় জইশ জঙ্গী সংগঠন। এই জঙ্গি হামলায় নিহত হয়েছে 40 জন সিআরপিএফ জাওয়ান হন। তবে এ বিস্ফোরণে আরো জাওয়ান এর মৃত্যু হয়েছে বলে। ওই বিস্ফোরণের নিহতদের সংখ্যা বেড়ে 49 জন হয়। আরো অনেক জাওয়ান গুরুতর জখম হয়েছেন। বাদামিবাগের আর্মির 92 বেস হাসপাতালে আহত জওয়ানরা চিকিৎসাধীন। হামলার দিন 350 কেজি বিস্ফোরক বোঝাই করা একটি স্কোরপিও গাড়ি নিয়ে সিআরপিএফ এর ট্রাকে ধাক্কা মারে আত্মঘাতী জইশ জঙ্গি আদিল দার। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে, ওই বিস্ফোরক এর মধ্যে পুরোটাই ছিল হেবি এক্সপ্লোসিভ আরডিএক্স ঠাসা। আর তাই বিস্ফোরণে তীব্রতা ছিল অতিরিক্ত পরিমাণে।

প্রায় 80 মিটার দূরে ছিটকে পড়ে গিয়েছিল নিহত জাওয়ানদের দেহ। সেনাদের ট্রাকের ধাক্কা মারার পর জাওয়ানদের ঘিরে গুলি বৃষ্টি শুরু করে জইশ জঙ্গিরা। ওই ভয়ানক বিস্ফোরণ এরপর ট্রাকটি দু টুকরো হয়ে যায়। ঘটনাস্থলে 100 মিটার জুড়ে শুধু জাওয়ানদের মৃতদেহ দেখতে পাওয়া যায়। তাই আপনাদের সকলের কাছে “দ্যা ইন্ডিয়া নিউজ” এর পক্ষ থেকে আবেদন আপনারা সকলে পেটিএম অথবা ফোন পের এর মাধ্যমে এই শহীদ জাওয়ানদের পরিবার গুলির জন্য নিজের সামর্থ্য মতো সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। একটা কথা সবসময় মনে রাখবেন এই বীর জওয়ানরা আছে বলেই আজ আমরা নিশ্চিন্তে ঘুমোতে পারি।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close