রুশ রাষ্ট্রপতি পুতিন বলে দিলেন এমন কথা, যার ফলে বদলে যেতে পারে নির্বাচন এর পরিণাম।

‌আপনারা সকলেই জেনে থাকবেন যে ,এই সময় বিভিন্ন খবরের চ্যানেলে কেবল রাজনীতি নিয়েই আলোচনা চলছে। তবে আপনাদের জানিয়ে দিই ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন হতে আর মাত্র ২ থেকে ৩ মাস বাকি। সকল রাজনৈতক দলগুলি তাদের নিজের নিজের প্রচার কার্যে ব্যস্ত। ভারতের ৭০ তম গণতন্ত্র দিবসের সময় রুশের রাষ্ট্রপতি মোদি সরকারের সম্মন্ধে এমন কিছু বললেন যে কারণে , ২০১৯ এর নির্বাচন তো পাল্টে গেলোই সেইসঙ্গে বিরোধী দল গুলি অবাক হয়ে গেলো। আপনাদের জানিয়ে দিই , অন্যবারের তুলনায় এবার ভারতের গণতন্ত্র দিবস একটু আলাদা ভাবে পালন করা হলো।

 

এই অবসরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী , নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোসের আজাদ হিন্দ বাহিনীর পূর্ব সেনাদের গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে উৎযাপিত প্যারেডে তাদের সদর আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। আর এই কাজটির জন্য রাজনীতি জগতের সকলেই তার প্রশংসাও করলেন।এছাড়াও সেদিন মোদিজি সাউথ আফ্রিকার রাষ্ট্রপতিকে ভারতের মুখ্য অতিথী করে ভারত ও সাউথ আফ্রিকার সম্পর্কটিকে আরো গভীর করে তুললেন। এছাড়াও বিভিন্ন দেশের নেতারাও ভারতকে শুভ কামনা জানিয়েছে। ভারতের সবচেয়ে পুরনো বন্ধু রুশ এর রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ও ভারতকে শুভকামনা জানালেন। আরো জানিয়ে দিই ,রুশ এর রাষ্ট্রপতি পুতিন নিজের বার্তাতে লিখেছেন, যে ভারত সব দিক দিয়ে পিছিয়ে থাকতো, আজ সেই ভারত অনেক দ্রুতই উন্নতির শিখরে পৌঁছেছে, আর সেটা আর্থিক , সামাজিক অথবা প্রযুক্তির দিক দিয়েই হোক না কেনো , ভারত উন্নতির পথে এগিয়ে চলেছে ।

তিনি আরো বলেন এরকম প্রধানমন্ত্রী যদি আগে ভারত পেতো তাহলে ভারতের নাম আজ শিখরে থাকতো। পুতিন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কে শুভকামনা জানালেন। এছাড়াও রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন, সমগ্র ভারত এবং সেইসঙ্গে মোদিজির ও প্রশংসা করলেন।রুশ প্রধানের এই বক্তব্যতে ভোটের ফলাফল বিজেপির অধীনে হতে পারে। বিগত বছরের মত এবারও বিজেপির জয় অনিবার্য। কংগ্রেসকে হারের সম্মুখীন করতে হতে পারে। এই বিষয়ে আপনাদের কি মতামত তা আমাদের অবশ্যই জানাবেন। আরো এরকম নতুন নতুন খবরের আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ওই পোর্টালটিতে।

Related Articles

One Comment

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close