দেশনতুন খবরবিশেষ

মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ ঘোষণার ভারতের দাবিকে পূর্ণ সমর্থন রাশিয়ার…

সন্ত্রাস বন্ধ করতে জইশ-ই-মোহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর প্রধান মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ ঘোষণার দাবি জানিয়েছিল ভারত। রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে এই দাবি পেশ করা হয় নয়া দিল্লির তরফ থেকে। তবে চীনের হস্তক্ষেপে পর এটা হয়নি। পুলওয়ামা হামলার পর আবার সেই দাবি উঠে এসেছে। তবে ভারত দাবি করেনি, দাবি করেছে রাশিয়া। বুধবার রাশিয়ার মন্ত্রী ডেনিশ মেনটুভ জানান, মাসুদ আজহার কে নিয়ে ভারত যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাতে রাজি রাশিয়া। এছাড়াও এদিন পুলওয়ামায় শহীদ জাওয়ানদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা জানাই রাশিয়ার মন্ত্রী মেনটুভ। 16 সালের মার্চে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা জইশ জঙ্গী গোষ্ঠীর প্রধান মাসুদ আজহারকে বিশ্ব সন্ত্রাসবাদি ঘোষণার দাবি জানায় ভারত। এতে আমেরিকা, ফ্রান্স, ব্রিটেন সহ আরো নানান দেশ রাজি হন।

কিন্তু প্রতি বারের মতন পদ্ধতিগত সমস্যা তুলে ধরে সেই প্রস্তাবে বাধা হয়ে দাঁড়ায় চীন। তাদের বিরুদ্ধেও ভারত অভিযোগ তোলে। চীন জানায়, রাষ্ট্রসংঘে গৃহীত প্রস্তাবের মধ্যে কিছু ভুল ত্রুটি রয়েছে। বিষয়টি পুনর্বিবেচনার জন্য প্রথমে 2016 সালের 31 ডিসেম্বরের পর্যন্ত চীন সময় চায়। এরপর এর সময়সীমা বাড়িয়ে চলতি বছরে আগস্ট মাসে করা হয়। আগস্ট এর সময় শেষ হলে ফের বৈঠকে বসে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলে। সেখানে বেজিংয়ের তরফ থেকে একই কারণ দেখানো হয়। তখন ফের সময় বাড়িয়ে তা 2 নভেম্বর করা হয়। পরে নিজেদের নিজেদের অবস্থানে স্থির থাকে চীন। চিনা বিদেশ মন্ত্রকের দাবি, মাসুদ আজহার নিষিদ্ধ করার দাবিতে তারা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না এই মুহূর্তে। তাই এখন আমরা কোন স্থায়ী সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না।

তবে পুলওয়ামা জঙ্গি হামলায় আত্মঘাতী জঙ্গি আদিল দার জইশ-ই-মোহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর সক্রিয় সদস্য ছিলেন। হামলা হওয়ার আগে ভিডিওটি তিনি রেকর্ড করে এই দাবি করেন। দুদিন আগেই ভারতীয় সেনাদের অভিযানে নিহত হয় জইশ-ই-মোহাম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্য কামরানের। এর থেকে স্পষ্ট যে হামলার পেছনে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনের হাতে রয়েছে। এরপর রাশিয়া ভারতের পাশে দাঁড়ায়। এবং জানায় সন্ত্রাস মোকাবেলার ক্ষেত্রে যে কোনো পরিস্থিতিতে তারা ভারতের পাশে দাঁড়াবে। এদিন রাশিয়ার মন্ত্রীর বার্তা, সারা বিশ্বে পাকিস্তানকে কোণঠাসা করার দৌড়ে আবারো অস্বস্তি পারলো ইসলামাবাদে।

Related Articles

Back to top button