Categories
নতুন খবর বিশেষ রাজনৈতিক রাজ্য

বর্তমানে মমতায় ভরসা, শাহরুখের সিনেমার নামে নতুন প্রচার অভিযান শুরু রাজ্যের শাসক দলের

2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের জন্য প্রচারকার্য শুরু করে দিয়েছে রাজ্যের প্রধান শাসক দল তৃণমূল আর এবার তারা এই প্রচার কাজে শাহরুখ খানের জনপ্রিয় সিনেমা “ম্যায় হুঁ না” (Main Hoon Nah) নামে নতুন ক্যাম্পেইন চালু করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিন রাজ্যের সমস্ত জনগণকে নতুন চমক দিয়ে নতুন প্রচারের ঝাঁ-চকচকে ফিল্মি পোস্টার প্রকাশিত করছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল। যেখানে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জনসঙ্গমের মধ্যে আঙ্গুল তুলে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে এবং তিনি একমাত্র ভরসা এমনটাই প্রকাশিত করা হয়েছে সেই পোস্টারে। সেই পোস্টারের মাথার উপরেই লেখা রয়েছে ‘ম্যায় হুঁ না’।

যদিও এর আগে কলকাতা পুলিশ কে ফিল্মি সংলাপকে হাতিয়ার করে করোনা মোকাবেলায় সতর্ক বার্তা প্রচার করতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যে। এক্ষেত্রে মুম্বাইতে একাধিকবার জনচেতনা মূলক প্রচার কাজে ফিল্মি কায়দায় অবলম্বন করতে দেখা যায়, তবে রাজনৈতিক দলের ক্যাপ্টেনের ক্ষেত্রে সিনেমার নাম কিংবা সংলাপের প্রভাব খুব একটা দেখা যায় না। তাছাড়া পশ্চিমবাংলাতে তো বলতে গেলে প্রায় বিগত কয়েক দশক হয়ে গেছে যেখানে রাজনৈতিক দলের ক্যাম্পেনের ক্ষেত্রে সিনেমার নামের আশ্রয় নেওয়া হয়নি।


প্রসঙ্গত, একুশের নির্বাচনের জন্যই দলীয় কর্মীদের মনে আত্মবিশ্বাস জাগাতে “হাম হ্যায় না”বলে সুর চড়িয়েছেন তৃণমূলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে মুখ্যমন্ত্রীর টুইটে এটা স্পষ্ট দলের এই নতুন ক্যাম্পেইনে, একুশের নির্বাচনী লড়াইয়ের প্রস্তুতির অন্য এক ইঙ্গিত। আর তাই বাংলার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর শাহরুখ খানের জনপ্রিয় সিনেমার নামেই ক্যাম্পেইনের নামকরণের ক্ষেত্রে ভরসা রেখেছেন তাঁর প্রিয় ‘দিদি’ তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে হঠাৎ করে কেন এই অভিনব পোস্টার? তার কারণ বলাই বাহুল্য,যেখানে তৃণমূলের অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্টারের দরুন একথা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে বাংলার মানুষ যেকোন বিপদে আপদে দিদির উপর ভরসা রাখতে পারবেন।

টুইটে উল্লেখিত রয়েছে, এ সময় দেশের যা পরিস্থিতি তাতে দেশের মানুষ এক অনিশ্চয়তা এবং উদ্বেগের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার এই পরিস্থিতিতে দেশের পড়ুয়াদের এক বিপদের মুখে ফেলে দিয়েছে।আর তার রেশ ধরেই ছাত্রছাত্রীদের নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য এই জ্বলন্ত সমস্যা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এগিয়ে এসেছেন। তিনিই প্রকৃতপক্ষে প্রত্যেকের নেত্রী!” জয়েন্ট-নিট নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে প্রথম থেকেই রণংদেহি মেজাজে ময়দানে নেমেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিকে রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি এই যে পোস্টটি তৈরি করা হয়েছে সেটি টিম পিকের ধারনার উপর ভিত্তি করে, তাদের দাবি এর আগেও প্রশান্ত কিশোরের তরফ থেকে প্রথম ক্যাম্পেইন যখন শুরু করা হয়েছিল তখন সেটির নাম দেওয়া হয়েছিল দিদিকে বলো, আরো একবার বাংলার মানুষদের মনে ভরসা জাগাতে টিম পিকের আরও এক নতুন অস্ত্র হচ্ছে ‘ম্যায় হুঁ না’।