খেলাধুলানতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

এবার করোনা যুদ্ধে শামিল হলেন হিটম্যান অনুদান করলেন 45-25-5-5 লক্ষ টাকার…

করোনা মোকাবিলায় তৎপর রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার। ভারতে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় 1600 কাছাকাছি। এর পাশাপাশি অভিনেতা অভিনেত্রীদের থেকে শুরু করে ক্রিকেটজগতের খেলোয়াড়রাও পর্যন্ত সাহায্য করেছেন রাজ্য সরকার ও কেন্দ্রীয় সরকারকে এই করোনার সাথে লড়াই করার জন্য। এবং প্রমাণ করে দিয়েছেন যে দুঃসময়ে তারা মানুষের পাশে আছেন। আমরা সবাই জানি বর্তমানে করোনাভাইরাস কে ঠেকানোর জন্য গোটা দেশজুড়ে পালন হচ্ছে লকডাউন। আমাদের রাজ্যেও ইতিমধ্যেই তিনজনের মৃত্যু ঘটেছে এই করোনা তে।

এই করোনাভাইরাস কে হারাতে হলে আমাদের সারাদেশের মানুষকে এক হয়ে রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্রীয় সরকার যে সমস্ত নির্দেশগুলি দিচ্ছে সেইগুলি পালন করতে হবে। এই লকডাউন চলাকালীন যাতে গরীব মানুষরা অভুক্ত না থাকে তার জন্য প্রধানমন্ত্রী রিলিফ ফান্ড এবং মুখ্যমন্ত্রী রিলিফ ফান্ড খোলা হয়েছে তাতে সবাই নিজেদের সাধ্যমত দান করছেন। যেখানে আমেরিকা, ইতালির মতোন উন্নত দেশ করোনা ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে সেখানে ভারত এখনো পর্যন্ত করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে।

আর এই লড়াইকে আরোও এগিয়ে নিয়ে যেতে আমাদের অনুদান করা উচিত। লকডাউনের ফলে অনেক মানুষের কাজ বন্ধ আর তাই গরিব খেটে খাওয়া মানুষদের যাতে অসুবিধা না হয় তার জন্য প্রধানমন্ত্রী এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ তহবিল খুলেছেন। এই ত্রাণ তহবিলে ইতি মধ্যেই, অক্ষয় কুমার, শচীন টেন্ডুলকার, রতন টাটা, বিরাট অনুষ্কা, শিখর ধাওয়ান। এছাড়াও হিটম্যান এও এই কাজে এগিয়ে এসেছেন। শচীন টেন্ডুলকার ইতিমধ্যেই 50 লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন।

এছাড়াও 50 লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন দাদা অর্থাৎ সৌরভ গাঙ্গুলী।এবং বিসিসিআই এর তরফ থেকে 51 কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে। আর রোহিত শর্মা PM-CARES ফান্ড থেকে শুরু করে মহারাষ্ট্র ত্রাণ তহবিল, ফিডিং ইন্ডিয়া ও ওয়েলফেয়ার অফ স্টে ডগস সবেতেই 45-25-5-5 লক্ষ টাকা দিয়েছেন। সব মিলিয়ে তিনি মোট 80 লক্ষ টাকা অনুদান করেছেন।

Related Articles

Back to top button