নতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

কোভিড তথ্য জানান নামে হাতানো হচ্ছে ব্যক্তিগত তথ্য, আর্থিক প্রতারণার আশঙ্কা! সতর্ক করল কেন্দ্র…

করোনা ভাইরাস এর ফলে সারা দেশজুড়ে মহামারীর সৃষ্টি হয়েছে। সরকার বিভিন্ন ধরনের প্রচেষ্টা করছে যাতে এই ভাইরাসকে রোধ করা যায়। এই সময় রাজ্য সরকার বা কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে মাঝে মাঝে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের ইমেইলে বা ফোন করে বা মেসেজের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য পাঠাচ্ছে। আর এরই সুযোগ নিয়ে মোবাইল ব্যবহারকারীদের সাথে প্রতারণার সৃষ্টি করছে দুষ্কৃতীরা। কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কোভিদ সংক্রান্ত তথ্য দেওয়ার নাম করে মোবাইলফোন ব্যবহারকারীদের ইমেইল অ্যাকাউন্টে ভাইরাস ছড়ানো হচ্ছে।

এই ভাইরাসের ফলে অপরাধীরা ব্যবহারকারীর সমস্ত গোপনীয় তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে। তাই এই বিষয়ে দেশবাসীকে সতর্ক করা হল কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে। সম্প্রতি ভারতে সাইবার হানা রোধ করার জন্য তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের অন্তর্গত ইন্ডিয়ান কম্পিউটার এমার্জেন্সি রেসপন্স টিম বা সার্ট এই তথ্য জানিয়েছে কেন্দ্রকে। টুইট করে সার্ট এই তথ্য প্রকাশ করেছে।এছাড়া আরও জানা গিয়েছে যে, যে মেইলের মাধ্যমে এই ভাইরাস ছড়ানোর চেষ্টা হচ্ছে তার অধিকাংশটাই আসছে ‘এনকভ[email protected]গভ.ইন’ থেকে।

উপর থেকে এটিকে সরকারি ওয়েবসাইট মনে হলেও আসলে কিন্তু তা একেবারেই নয়। এটি শুধুমাত্র সাধারণ মানুষের চোখে ধুলো দেওয়ার জন্য এই ওয়েবসাইটিকে তৈরি করা হয়েছে। সার্টের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে,’ প্রতারকরা এই মেলার মাধ্যমে COVID-19 সংক্রান্ত তথ্য এবং সুযোগ সুবিধার কথা বলা হয়। সাধারণ মানুষেরা ভাবেন যে ইমেইলটি সরকার থেকে পাঠানো হয়েছে তাই তারা বিশ্বাস করে নেয়। এর ফলে এই মেইলের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করে অনেকেই।

কোনো ব্যক্তি যদি এই Mail এর ভিতরে একবার প্রবেশ করে যান তাহলে তার মধ্যে থাকা ভাইরাস নিজে নিজে কাজ শুরু করে দেয়।’ এছাড়াও সার্ট আরও জানিয়েছে যে, শুধুমাত্র মেল নয় টেক্সট মেসেজেও পাঠাতে পারে প্রতারকরা। যদি কোন ব্যক্তি ভুল করে ওই লিংকে ক্লিক করে দেয় তাহলে ওই ভাইরাস তার মোবাইলে প্রবেশ করবে এবং মোবাইলের মধ্যে থাকা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রতারকদের কাছে চলে যাবে। এবং প্রতারকদের কাছে ইতিমধ্যেই প্রায় 20 লাখ ভারতীয় ইমেইল আইডি রয়েছে। আর এদের মধ্যে বেশির ভাগেরই বাড়ি আমেদাবাদ, দিল্লি, মুম্বাই এই সমস্ত শহরে।

যেহেতু এসব শহরে করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত সংখ্যা বেশি তাই প্রতারকরা এই সমস্ত শহর গুলি কে টার্গেট করেছে। যাতে সেখানকার মানুষেরা এই সমস্ত মিলবে উৎসাহিত হয়ে ওঠে আর তাদের ফাঁদে পা দেয়।
সাইবার বিশেষজ্ঞরা সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, এবার থেকে ইমেইল ব্যবহারকারীদের খুবই সতর্ক থাকতে হবে। তাদের কাছে যদি এই সংক্রান্ত কোন মেইল আসে তাহলে তারা যেন ভুল করেও সেই Mail এ না ঢুকে পড়েন। কোন ব্যক্তি যদি এই ধরনের ইমেল পেয়ে থাকেন যেটা সন্দেহজনক তাহলে সঙ্গে সঙ্গে সার্ট এর সঙ্গে যোগাযোগ করুন। এরপর সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেবে সার্ট।

Related Articles

Back to top button