মাত্র 30 সেকেন্ডেই মিলবে ফলাফল,ভারত ইজরায়েলের যৌথ উদ্যোগে তৈরি হবে র‌্যাপিড টেস্টিং কিট

গোটা বিশ্বজুড়ে চলছে মরণ ভাইরাস করোনা দ্রাপট বিশ্বের প্রতিটি দেশই এখন উঠে পড়ে লেগেছে এই করোনার সাথে লড়াই করতে কোনো দেশ তৈরি করছে ওষুধ, আবার কোন দেশ ভাইরাস মোকাবিলা করতে ভ্যাকসিনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আর এবার এই করোনা মোকাবেলা করতেই ভারতে আসতে চলেছে ইসরাইলের বিজ্ঞানীরা। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে তারা ভারতের সাথে যৌথ উদ্যোগে কাজ করতে চলেছেন।

ইজরায়েলের বিজ্ঞানীরা ভারতীয় বিজ্ঞানীদের সাথে একত্রে মিলে একটি বিশেষ কিট তৈরি করতে চলেছেন যা নাকী মাত্র 30 সেকেন্ডের মধ্যে বলে দেবে কোনো মানবদেহে করোনা উপস্থিতি রয়েছে কিনা। এ বিষয়ে ইজরায়েলের দূতাবাস থেকে এক বিবৃতি অনুযায়ী জানতে করা গেছে আগামী কয়েক সপ্তাহ ধরে ইজরায়েলের বিদেশ প্রতিরক্ষা ও স্বাস্থ্য মন্তব্যের সাথে যৌথভাবে কাজ করতে চলেছেন আর তাতে করেই উড়িয়ে নিয়ে আসা হচ্ছে ইসরাইলের ডিফেন্স মিনিরি গবেষকদের।

এ ক্ষেত্রে ভারতীয় বিজ্ঞানী কে বিজয় রাঘবন ও ডিআরডিও একসঙ্গে কাজ করবে ইজরায়েল। এই মরণ ভাইরাস করোনা হাত থেকে কিভাবে স্বাভাবিক করা যায় দেশের পরিস্থিতি নিয়ে প্রচেষ্টা চালাবে দুই দেশ।ইতিমধ্যে এই বিষয় নিয়ে ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে তিনবার ফোনে কথা হয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার দিন ছাড়পত্র পেয়েছে সম্পূর্ন ভারতে তৈরি হওয়া প্রথম অ্যান্টিজেন টেস্ট কিট। এই দিন মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের আওতায় আইসিএমআর এই অ্যান্টিজেন টেস্ট কিটকে অনুমোদন প্রদান করে।

আর বৃহস্পতিবার দিন মাই ল্যাব ডিসকভারি সল্যুশন এর পক্ষ থেকে এই তথ্য প্রকাশিত করা হয়। ভারতের বাজারে এবার থেকে এই টেস্ট কিটটি পাওয়া যাবে আর এই কিটটির নাম দেওয়া হয়েছে প্যাথোক্যাচ কোভিড 19 অ্যান্টিজেন র্যাপিড টেস্টিং কিট‌।এক্ষেত্রে পুনের সংস্থা মাই ল্যাব জানাচ্ছে এই কিটটির দাম মাত্র 450 টাকা।ইতিমধ্যে তারা উঠে পড়ে লেগেছে এই কিট টির উৎপাদনের পরিমাণ বাড়িয়ে তুলতে এবং দ্রুত সহজলভ্য করার উদ্দেশ্যে। যদিও এক্ষেত্রে অর্ডার দিলেই দ্রুত মিলবে এই কিট।আর এই সংস্থার দাবি শুধুমাত্র এই অ্যান্টিজেন কিটটিই পাশাপাশি করোনা চিহ্নিত করতে আরো যে যে কিট গুলি ব্যবহার করা হয় সেগুলি সব ভারতের মাটিতেই তৈরি করা হবে।