নতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

পোস্ট অফিসের এই নয়া স্কীমের দরুন এখন 1000 টাকা বিনিয়োগ করেই হতে পারেন লাখপতি..

পোস্ট অফিসের এমন অনেক প্রকল্প আছে যার দ্বারা স্বল্প সঞ্চয়ে অনেক টাকা পাওয়া যেতে পারে। মধ্যবিত্তদের কথা ভেবেই বিশেষ করে এই ধরণের প্ল্যান আনা হয়ে থাকে পোস্ট অফিসের তরফ থেকে। যার মাধ্যমে ভালো রকমের সঞ্চয় করা যেতে পারে। পোস্ট অফিসের একটি মান্থলি ইনকাম স্কিম বা মাসিক আয় যোজনাতে মধ্যবিত্তদের কাছে আকর্ষণীয় প্রকল্প গুলির মধ্যে একটি। এই প্রকল্পটিতে কোন ব্যাক্তি যদি দেখে শুনে টাকা জমা রাখে তাহলে ভবিষ্যতে সে ব্যাক্তি মোটা টাকার মালিক হয়ে যেতে পারবে।

এমনই একটি প্রকল্প রয়েছে পোস্ট অফিসে। যার দ্বারা 59,400 টাকা রোজগার করতে পারবেন। এই প্রকল্পটির সম্পর্কে বিস্তারিত নীচে আলোচনা করা হলো – পোস্ট অফিসে মান্থলি ইনকাম স্কিমে যে কেউ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। এমন কী সিঙ্গেল বা জয়েন্টেও এই অ্যাকাউন্ট খোলা যেতে পারে। 10 বছর বয়স বা তার উপরে যে কেউ এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। অ্যাকাউন্ট হোলডাররা মাত্র 1000 টাকার বিনিময় এই প্রকল্পে বিনিয়োগ শুরু করতে পারবেন।

সিঙ্গেল অ্যাকাউন্ট এর ক্ষেত্রে সব থেকে বেশি বিনিয়োগ করা যাবে 4.5 লক্ষ টাকা এবং জয়েন্ট অ্যাকাউন্ট এর ক্ষেত্রে 9 লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করা যেতে পারে। এই স্কিমের মেয়াদ হল পাঁচ বছর। পোস্ট অফিসের এই স্কিমে বিনিয়োগ করার অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে যেমন, এই স্কিমে যে কেউ অ্যাকাউন্ট  খুলে বিনিয়োগ করতে পারবে। বিনিয়োগ করার অর্থ সর্বদা নিশ্চিত থাকবে। পোস্ট অফিসে যে ফিক্স ডিপোজিট হয়েছে তার থেকে এই স্কিমে অনেক ভালো রিটান পাওয়া যায়।

এই প্রকল্পের টাকা পুনরায় বিনিয়োগ করে আপনি মাসিক আয় নিশ্চিত করতে পারবেন। অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য আপনাকে ভোটার কার্ড, আধার কার্ড, রেশন কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স এগুলির মধ্যে যেকোনো একটি প্রমানপত্রের জেরক্স জমা দিতে হবে। এছাড়াও ঠিকানার প্রমাণ পত্র জমা দিতে হবে সেই সময়। এবং দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ফটো লাগবে। এই প্রকল্পে আপনি যদি সর্বাধিক 9 লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করে থাকেন তাহলে বার্ষিক 6.6 শতাংশ হারে সুদ পাবেন অ্যাকাউন্ট হোল্ডারা।

এই হারে সুদ দিলে আপনি সর্বাধিক 59,400 টাকা  সুদ পাবেন। এই স্কিমের কোন বিনিয়োগকারী যদি চান তার সমস্ত টাকা তুলতে তাহলে বিনিয়োগ করার এক বছর পরে সেই টাকা তুলে নিতে হবে।অ্যাকাউন্ট খোলার পর থেকে 1 বছর থেকে 3 বছর পর্যন্ত জমা করা টাকা আর যদি কোন ব্যক্তি তুলতে চান তাহলে সেখান থেকে 2 শতাংশ চার্জ কেটে বাকি টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে। আর তিন বছরের বেশি হলে তার অ্যাকাউন্ট থেকে 1% চার্জ কেটে বাকি টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে। সুতরাং আর দেরি না করে এখুনি আপনার নিকটবর্তী পোস্ট অফিসে গিয়ে স্কিম সম্বন্ধে জানুন এবং বিনিয়োগ করতে শুরু করে দিন।

Related Articles

Back to top button