একদম ঘরোয়া পদ্ধতিতে দূর করুন ব্ল্যাকহেডস, খরচ করতে হবে না পার্লারে হাজার হাজার টাকা

সুন্দর মুখশ্রী ঝকঝকে তরতাজা স্কিন সকলেই চায়৷ এখন অবশ্য শুধু মেয়েরা নয়, ছেলেরাও  নিজেদের ত্বক সুন্দর আর উজ্জ্বল করতে আগ্রহী৷  কিন্তু প্রতিদিনের ব্যস্ততা, কাজের চাপ, টেনশন ত্বকের ওপর প্রভাব ফেলে৷ সেইভাবে ত্বকের  যত্ন নেওয়ার  সময় আর হয়ে ওঠে না৷ প্রতিদিন এর দূষণ থেকে শুরু করে নানা কারণে ত্বকের ক্ষতি হয়৷ অনেকেই ত্বক ভালো রাখতে  নানান ক্রিম, ফেসওয়াস ব্যবহার করেন। কিন্তু সেই সব বিউটি  প্রোডাক্ট এর দাম অনেক। সকলের সাধ্য হয় না। তাই বাড়িতেই কিছু করে আপনি ত্বক ভালো রাখতে পারেন৷

মুখের ঔজ্বল্ল্য নষ্ট হয় প্রধানত ভালোভাবে পরিস্কার না করার জন্য৷ নোংরা জমতে জমতে একসময় তৈরি হয়  ব্ল্যাকহেডস (Blackheads)।  প্রচুর মানুষ এই সমস্যায় ভোগেন৷ ব্ল্যাকহেডস সমস্যার সমাধানের জন্য আজ রইল ঘরোয়া উপায়৷ঘরোয়া পদ্ধতিতে একেবারের ঘরের জিনিস ব্যবহার করেই আপনি ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্তি পাবেন৷  এই ঘরোয়া স্ক্রাব টি নিয়মিত ব্যবহারের ফলে ত্বকের ব্ল্যাকহেডের সমস্যা দূর হবে৷ মুখ আরো উজ্জ্বল পরিষ্কার ও সুন্দর হয়ে উঠবে।

প্রথমেই বলি মধুর কথা৷ মধুর অসংখ্য উপকারিতা রয়েছে। মধুর অসামান্য খাদ্যগুণ সকলের জানা৷রূপচর্চাতেও মধু  জাদুর মত কাজ করে৷ ব্লাকহেডস এর সমস্যা থাকলে মধু মেখে- এরপর ১৫-২০ মিনিট রাখুন৷  মধুর প্রলেপটি শুকিয়ে গেলে উষ্ণ গরম জল দিয়ে মুখ  ধুয়ে ফেলুন। এতে  আপনার ত্বকের মধ্যে থাকা  নোংরা
পরিষ্কার হয়ে যাবে।

জীবনে সফল হতে সর্বদা মেনে চলুন ভগবত গীতার এই ন’টি উপদেশ, জীবনে আসবে সুখ-সমৃদ্ধি ও অর্থলাভ

হলুদ (Turmeric)–

প্রতিটি বাড়িতেই রান্নার জন্য হলুদ ব্যবহৃত হয়। শুধু রান্নার মশলা হিসাবে নয়,  হলুদ কাঁচা, শুকনো, গুঁড়ো নানাভাবে ব্যবহার হয়৷ ব্ল্যাকহেডস কমাতে হলুদ দারুন কার্যকরী।  দীর্ঘদিন ধরেই হলুদ ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ব্ল্যাকহেডস এর সমস্যা থাকলে  হলুদগুঁড়ো, চন্দন গুঁড়ো ও অল্পপরিমাণ দুধ ভালোভাবে মিশিয়ে সেই মিশ্রণ ব্ল্যাকহেডস এর জায়গায় লাগান।

১৫-২০ মিনিট পর  মুখ উষ্ণ গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে কিছুদিন করলে আপনি নিজের ত্বকে পরিবর্তন বুঝতে পারবেন। ত্বক মসৃণ স্বাস্থ্যজ্জ্বল হবে৷ হলুদ বাটা ও পুদিনা পাতার রস দিয়ে মিশ্রণ তৈরী করে  সেই মিশ্রণও  ব্যবহার করতে পারেন। এগুলি করলে  সুফল পাবেন খুব দ্রুত।