বাজারে আসতে চলেছে রিলায়েন্স জিওর ই-কমার্স ওয়েবসাইট, কড়া টেক্কা পাবে ফ্লিপকার্ট অ্যামাজনের মতো ই-কমার্স সাইট…

টেলিকম সেক্টরে জিও যবে থেকে আত্মপ্রকাশ করেছে তখন থেকে টেলিকম দুনিয়ায় এয়ারটেল ভোডাফোন আইডিয়াকে কড়া টক্কর দিচ্ছে। জিও আসার পর থেকে টেলিকম কোম্পানি গুলির মধ্যে প্রতিযোগিতা আগের তুলনায় এখন অনেক গুণ বেড়ে গেছে, তা সে রিচার্জ প্ল্যানের দিক থেকে হোক কিংবা নতুন নতুন অফার এর দিক থেকেই হোক।তবে এবার প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে যে অ্যামাজন ফ্লিপকার্ট কে টেক্কা দিতে মুকেশ আম্বানির সংস্থা ই-কমার্স সাইট বের করতে চলেছে।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী এটাও জানতে পারা গেছে যে জিও যদি এইভাবে আত্মপ্রকাশ ঘটায় তাহলে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিস লিমিটেড এর (RIL) এই ই-কমার্স সাইটটির নাম জিওমার্ট (JioMart) দিতে চলেছে। আপাতত জিও তার পরিষেবাটিকে নবি মুম্বাই, থানে এবং কল্যাণেতে চালু করেছে। ধীরে ধীরে এই পরিষেবা টিকে গোটা দেশের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে জিও সংস্থার তরফ থেকে।

তবে গত বছরই যেমনটা আমরা জানি রিলায়েন্স কোম্পানির চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি এই প্রকল্পটি চালু করার ঘোষণা করেছিলেন আর তার সাথেই তিনি জানিয়েছিলেন যে এই প্রকল্পের মাধ্যমে তিন কোটি অফলাইন রিটেলার এবং দেশের 20 কোটি বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে এই প্রকল্পের সুবিধা। তারই সাথে তিনি আরো জানিয়েছিলেন এই ই-কমার্স সাইটের মাধ্যমেই 50 হাজারেরও বেশি খাদ্যদ্রব্য ক্রয় করতে পারা যাবে বাড়িতে বসেই, আর এক্ষেত্রে খাদ্যদ্রব্যটি বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার জন্য লাগবেনা কোন প্রকার ডেলিভারি চার্জ।

এমন কি পণ্য ফেরত দেওয়ার ক্ষেত্রে কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না গ্ৰাহকদের সে কথাও তিনি এই দিন জানান। এক্ষেত্রে মুকেশ আম্বানি এই JioMart এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বলেন এটি দেশের নতুন দোকান উল্লেখিত শ্লোগানটি হলো “দেশ কি নয়ি দুকান”।সুতরাং এক্ষেত্রে বোঝা যাচ্ছে যে এটি একবার চালু হওয়ার পর ফ্লিপকার্ট, অ্যামাজন কে রীতিমত চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেবে। কারণ এই দুই ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর দেখা যায় অনেক ক্ষেত্রেই বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর সময় ডেলিভারি চার্জ নেওয়া হয়।

আর অন্যদিকে JioMart আগে থেকেই দাবি করে আসছে তাদের কোন প্রোডাক্ট এর ক্ষেত্রে ডেলিভারি চার্জ থাকবে না তাহলে এটি ভালো রকম টক্কর দেবে ভারতের অন্যান্য ই-কমার্স সাইট গুলিকে। এরই সাথে বলে রাখি ইতিমধ্যে জিও গ্রাহকদেরকে JioMart অ্যাপ্লিকেশনে যোগদান করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে আর এক্ষেত্রে বলা হয়েছে যেসব গ্রাহকেরা আগের থেকে রেজিস্টার করে নেবেন তাদের জন্য দেওয়া হবে দুর্দান্ত অফারের সুবিধা। তবে যাই হোক এর ফলে পাইকারী ব্যবসায়ীরা অফলাইনেও JioMart থেকে বাজার করতে পারবেন।

এরই সাথে জানানো হয়েছে JioMartঅ্যাপ্লিকেশন টিকে উভয়ই Operating System Android and ISO এর জন্য ডিজাইন করা হবে। তাই আপনার ব্যবহৃত মোবাইল এই দুই অপারেটিং সিস্টেমের মধ্যে চলতি হলেই JioMart অ্যাপের মাধ্যমে অর্ডার করা যাবে। তবে কবে থেকে এই বিশেষ সুবিধা মিলবে গ্ৰাহকদের তা এখনো স্পষ্ট করে বলা হয়নি।