প্রকাশ্যে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য! নিয়মিত ধূমপানের অভ্যাস বাড়াচ্ছে করোনায় আক্রান্ত হওয়া বা মৃত্যুর ঝুঁকি-বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO

আপনি কী ধূমপান করেন আর ধূমপান ছাড়া থাকতে পারেন না একটা দিনও? তাহলে আজকের এই খবরটি আপনার জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে কারণ এবার করোনা ভাইরাসের ওষুধ আবিষ্কার নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে এমন অবস্থায় এক চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে নিয়ে এলো চিকিৎসকেরা যা শুনে চিন্তিত হতে পারেন ধূমপানকারীরা। তারা জানালেন যে ব্যাক্তি প্রতিদিন ধূমপান করে থাকেন তাদের শরীরে থাবা বসাতে পারে এই মরন রোগ, আর যা অন্যদের তুলনায় অনেকখানি দ্রুতগতিতে।

আর এরই সাথে জানিয়ে দেয়া হলো শুধু ক্যানসারই আক্রান্ত ব্যক্তির দেহেই নয় ধূমপানের অভ্যাস বাড়িয়ে দেয় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা কে ফলে বেড়ে যায় মৃত্যুঝুঁকিও দাবি চিকিৎসক মহলের একাংশের। এই মুহূর্তে ভারতে করোনা ভাইরাসের দরুন আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 283 জন আর এই ভাইরাসের জেরে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 7 জন।আর অন্যদিকে বিশ্বজুড়ে এই করোনাভাইরাস এই যে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে 12836 জনের ও বেশি।

তবে বেরিয়ে আসা তথ্য অনুযায়ী যা জানতে পারা যাচ্ছে সেটাতে দেখা যাচ্ছে বিশ্বজুড়েই করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করে এই ভাইরাসের জেরে প্রাণ গেছে পুরুষ মানুষের।অর্থাৎ মহিলা ও শিশুদের তুলনায় করোনায় আক্রান্ত মৃতের বেশির ভাগই হলো পুরুষ। আর এই তথ্যের খোঁজ বিবিসি তরফ থেকে প্রকাশিত করা হয় যা তারা “চাইনিজ সেন্টাস অফ ডিজিজ কন্ট্রোলের”-পরিসংখ্যানকে বিশ্লেষণ করে পেয়েছিলেন। তবে আরো বলে রাখি এক্ষেত্রে পরিসংখ্যান অনুযায়ী বিশ্লেষণ করা হয়েছিল 44 হাজার ও বেশি রোগীকে। এই ভাইরাসের দরুন যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে 2.8% পুরুষ মানুষ অন্যদিকে মহিলাদের 1.7% আর শিশুদের ক্ষেত্রে সংখ্যা 0.2%।আর সবার চেয়ে বেশি রয়েছে মৃতদের মধ্যে সংখ্যা বয়স্ক মানুষের 15 শতাংশ। তবে চিকিৎসকদের তরফ থেকে বলা হচ্ছে এই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত যারা রয়েছেন তাদের লাইফ স্টাইলের রয়েছে কিছু পার্থক্য। তাদের দাবি বাইরে বেরোনো এবং ঘন ঘন ধূমপানের অভ্যাস এর অন্যতম কারণ।আর যেহেতু এই ভাইরাসের সংক্রমণ ফুসফুসে হচ্ছে তাই যারা নিয়মিত ধূমপান করে থাকেন তাদের ফুসফুস দুর্বল তাই দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে তাদের দেহে। তাই এই ভাইরাসে জেরে মৃত্যু হানা বেশি হয়েছে ধূমপান কারি ব্যক্তিদেরই।