দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

অনলাইনে লেনদেনের সময় ভুলেও করবেন না এই কাজ, না হলে এর মাশুল….

এখনকার দিনে ঘরে বসে ডিজিটাল মাধ্যমে এক জায়গা থেকে টাকা টান্সফার অন্য জায়গায় খুব সহজেই করা যায়। যার ফলে যেমন সময়ের অপচয় কম হয় সেরকম খুব সহজেই এক জায়গা থেকে টাকা খুব সহজেই অন্য জায়গায় পাঠানো যায়। আর যত দিন যাচ্ছে সরকারের তরফ থেকেও দেশজুড়ে ডিজিটাল লেনদেনের মাধ্যম কে বিশেষ জোর দেওয়া হচ্ছে। তবে সবসময় অনলাইন লেনদেনের ক্ষেত্রে কয়েকটি কথা অবশ্যই মাথায় রাখবেন না হলে আপনি কিন্তু চরম লোকসানের মুখে পড়তে পারেন।

যেমন টা দেখা যায় অনলাইনের মাধ্যমে কাউকে টাকা পাঠানোর সময় ব্যাংকের একাধিক তথ্য রেজিস্টার করতে হয় সে ক্ষেত্রে। আর এরপরই কিন্তু NEFT, UPI, RTGS ও IMPS এর মাধ্যমে টাকা পাঠানো সম্ভব হয়। তবে এক্ষেত্রে NEFT, RTGS ও IMPS মাধ্যমে টাকা পাঠাতে গেলে সেখানে বেনিফিশিয়ারি অর্থাৎ যাকে টাকা পাঠাবেন তার নাম, ব্যাংকের নাম, অ্যাকাউন্ট নাম্বর সহ আইএফএসসি (IFSC) কোড দিতে হয়। যেহেতু এক্ষেত্রে RBI নিয়ম অনুযায়ী তথ্য দেওয়া বাধ্যতামূলক, কিছু ব্যাংক বেনিফিশিয়ারি রেজিশেন করে থাকে সুনিশ্চিত করার জন্য যে সঠিক ব্যক্তির কাছে টাকাটা পৌঁছাচ্ছে কিনা তবে এটা করা ব্যাংকের জন্য বাধ্যতামূলক নয়।

তাই এক্ষেত্রে যদি কোনদিন ভুলবশত IFSC কোড দেওয়া হয় তাহলে কী ঘটতে পারে জানেন কী। IFSC কোড অর্থাৎ ইন্ডিয়ান ফিনান্সিয়াল সিস্টেম কোড যেটি 11 ডিজিটের ইউনিক কোড হয়ে থাকে। এখানে প্রথমের 4 টি সংখ্যা হয় ব্যাংকের নাম, পঞ্চম কোর্ডটি হয় 0, এবং 6-digit হয় ব্রাঞ্চ কোড। যদিও এক্ষেত্রে এই কোডটি ভুল দেওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমই থাকে।কিছু জায়গায় আইএফসি কোড টি অটোমেটিক্যালি নিয়ে নেয় আবার কিছু কিছু জায়গায় এটিকে লিখতে হয়।

তবে এক্ষেত্রে একথা সর্বদা মনে রাখবেন ভুল আইএফসি কোড দিয়ে দিলে টাকা টান্সফার হয়ে যেতে পারে তবে তার জন্য অন্য যে তথ্য গুলি রয়েছে সেটি ম্যাচ হতে হবে। তাই এক্ষেত্রে এই সম্ভাবনা খুবই কম রয়েছে কারণ দুটি ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বর এক হবার সম্ভাবনা খুবই কম। তবে অসম্ভব ব্যাপারও নয়, তাই সময় থাকতে সতর্ক থাকাই বুদ্ধিমানের কাজ।

Related Articles

Back to top button