কেন্দ্রের তরফ থেকে রেশন কার্ডে আসতে চলেছে বড়সড় রদবদল! এবার থেকে

দিল্লি সরকারের তরফ থেকে রেশন কার্ডে বড়সড় রদবদলের সিদ্ধান্ত নেওয়া হল । রেশন কার্ড সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য দিল সরকার। রেশন কার্ড এর নিয়মে একাধিক বদল হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে । কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে রেশন কার্ড হোল্ডারদের একাধিক সুবিধা দেওয়া হয়ে থাকে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী এবার থেকে গ্রাহকরা বাড়িতে বসেই পেয়ে যাবেন রেশন তার জন্য দোকানে যাবার কোনো প্রয়োজন নেই । যে সমস্ত ব্যক্তিরা ফ্রিতে রেশন পারছেন এবং কোন কারণে দোকানে যাওয়ার অসুবিধা আছে তারাও বাড়িতে বসে পেয়ে যাবেন এই সুবিধা।

অন্য কোন ব্যক্তিকে দোকানে পাঠিয়ে রেশন তুলতে পারবেন গ্রাহকরা। তার জন্য নিজেকে উপস্থিত থাকার কোনো প্রয়োজন নেই বলে সরাসরি জানিয়ে দিল সরকার। রেশন কার্ডের এই রদবদলের পেছনে কিছু কারণ দেখিয়েছে দিল্লি সরকার ।তাদের মতে অনেক সময়ই অসুস্থতার কারণে অথবা বার্ধক্যজনিত কারণে কিংবা যেখানে ব্যক্তিরা বয়স্ক ব্যক্তিরা বাড়িতে একা থাকেন সেক্ষেত্রে তাদের স্বশরীরে দোকানে গিয়ে রেশন তোলা খুবই অসুবিধাজনক হয়ে উঠছে । সে ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তি দ্বিতীয় কোনো ব্যক্তিকে নমিনেট করে পাঠাতে পারেন দোকানে। এবং তার মাধ্যমেই তিনি রেশন পেতে পারেন বাড়িতে বসেই।

তবে এই সুবিধা সমস্ত গ্রাহকরাই যে পাবেন এমনটা নয়। সে ক্ষেত্রে একমাত্র বিকলাঙ্গ অসুস্থ কোন ব্যক্তি এই সুবিধা পেয়ে থাকবেন। এছাড়াও যাদের বয়স ৬৫ বছরের উর্ধ্বে এবং ১৬ বছরের নিম্নে তারাই এই সুবিধা একমাত্র পাবেন। অর্থাৎ বয়স্ক ব্যক্তিরা এবং নাবালিকা নাবালকরা এই সুবিধা পেয়ে থাকবে।দিল্লি সরকারের তরফ থেকে আরও জানানো হচ্ছে এই সুবিধা পাওয়ার জন্য প্রত্যেক গ্রাহককে একটি করে নমিনেশন ফর্ম ফিলাপ করতে হবে। সমস্ত রেশন কার্ড হোল্ডারদের এই ফর্ম ছাড়া কোনরকম সুবিধা দেওয়া হবে না।

রেশন কার্ড এবং আধার কার্ডের সাথে এই নমিনেশন ফর্ম টি জমা দিতে হবে । যেসব ক্ষেত্রে ব্যক্তিরা রেশন তুলতে পারছেন না সেখানে যেই নমিনিকে পাঠানো হবে সেই নমিনির সম্পূর্ণ ডিটেইলস দিতে হবে। নমিনির সম্পূর্ণ ডিটেইলস ছাড়া তাকে রেশন দেয়া হবে না । তবে সম্পূর্ণ প্রকল্প টি জনসাধারণের জন্য ভালোই সুবিধাজনক হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।