বিরল নজির! ভোটের মুখে অর্থমন্ত্রীর পরিবর্তে বিধানসভায় বাজেট পেশ করবেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী

পশ্চিমবঙ্গে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের ঘন্টা বেজে গেছে৷ এইসময় এক অভাবনীয় ঘটনার সাক্ষী থাকতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভা। সূত্রের খবর, এই প্রথমবার রাজ্য বাজেট পেশ করতে চলেছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

জানা যাচ্ছে,  ইতিমধ্যেই  এই মর্মে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের কাছে অনুমতি চেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র (Amit Mitra)। ২০২১ এ আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে এবারে পূর্ণাঙ্গ বাজেট পেশ করবে না রাজ্য সরকার। পেশ করা হবে ভোট অন অ্যাকাউন্ট। মনে করা হচ্ছে,ভোট অন অ্যাকাউন্টেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  বড়সড় চমক দিতে পারে রাজ্য সরকার এর তরফে৷

শুক্রবার দ্বিতীয় তৃণমূল (TMC) সরকারের শেষ বাজেট। করোনা আবহে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রকে বাড়ির বাইরে বেরোতে নিষেধ করেছেন চিকিৎসকরা। ফলত, এই মুহূর্তে বিধানসভায় এসে বাজেট পেশ করতে অপারগ অমিত মিত্র। সেকারণেই বাজেট বক্তৃতা পেশের দায়িত্ব মুখ্যমন্ত্রী নিজের কাঁধে তুলে নিতে পারেন বলে জানা যাচ্ছে৷
অর্থমন্ত্রী নিজে রাজ্যপালের কাছে চিঠি লিখে বাজেট পেশ করার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন। সেই আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে৷

যদিও, বিধানসভার অধিবেশনে বাজেট কে পেশ করবেন তা  স্পিকার ঠিক করেন৷  এক্ষেত্রে রাজ্যপালের অনুমোদনের প্রয়োজন ছিল না। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,  সাম্প্রতিক অতীতে জগদীপ ধনকড়ের (Jagdeep Dhankhar) প্রতি তৃণমূল সরকারের এই সৌজন্য চোখে পড়ার মত৷ অন্যদিকে  বাজেট অধিবেশনের আগে রাজ্যপালের ভাষণ বাতিল করেছিল তৃণমূল সরকার। ১৯৬৩ সালের পর প্রথমবার বিধানসভায় বছরের প্রথম অধিবেশন রাজ্যপালের ভাষণ ছাড়া শুরু হওয়ায় বিরোধী শিবিরও ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল। রাজ্যপালও টুইটারে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এরই মধ্যে ধনকড়ের প্রতি রাজ্য সরকারের এই সৌজন্য তাৎপর্যপূর্ণ৷

চাপ বাড়ল মধ্যবিত্তদের হুরমুড়িয়ে বাড়লো রান্নার গ্যাসের দাম, পাশাপাশি দিন দিন চড়ছে পেট্রোল-ডিজেলের দামও

অর্থমন্ত্রীর অনুপস্থিতিতে অন্য কোনও মন্ত্রীও বাজেট পেশ করতে পারতেন। কিন্তু তার পরিবর্তে  মুখ্যমন্ত্রী নিজে বাজেট পেশের দায়িত্ব কেন নিলেন তাই নিয়েও আলোচনা চলছে রাজনৈতিক মহলে। অনেকেই মনে করছেন, ভোটের আগের এটাই রাজ্যের শেষ বাজেট৷ তাই বড় কোনও চমক দিতেই এই উদ্যোগ৷ সেই চমকের কথা  নিজের মুখেই ঘোষণা  করতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, বাম এবং কংগ্রেস (Congress) ইতিমধ্যেই বাজেট বক্তৃতা বয়কট করেছে। সেক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রী শুক্রবার কার্যত বিরোধী শূন্য বিধানসভায় বাজেট পেশ করতে চলেছেন।