হায়দ্রাবাদের ধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্তদের জেলে খাওয়ানো হল খাসির মাংস, বিক্ষোভের ঝড় সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে…

হায়দ্রাবাদের পশুচিকিৎসক ধর্ষণকাণ্ডে অভিযুক্তদের জন্য জেলে আয়োজিত করা হল রাজকীয় খাবার। এই ধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্ত চার অপরাধীর অনুরোধে খাওয়ানো হলো মটন কারি।গত শুক্রবার দিন গ্রেফতার হওয়ার পর এই প্রথম রাতে জেলে মিললো তাদের রাজকীয় খাবার। এরকম এক ঘটনা সোশ্যাল – মিডিয়ায়- ভাইরাল হওয়ার পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন সকল দেশবাসী। সকলেই অভিযোগ তুলতে শুরু করেছেন এরকম এক জঘন্য অপরাধের পরেও এইসব অপরাধীদের কেন জামাই আদর করা হচ্ছে জেলে? একাধিক মানুষ এই বিষয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

হায়দ্রাবাদের ধর্ষণকাণ্ডের জেরে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। যাদের নাম হল মোঃ আরিফ, জল্লু নবীন, জল্লু শিবা এবং চেন্নাকেসাভুলু। এই চার ব্যক্তির মধ্যে এই ট্রাকচালক আরিফই এই ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত।পুলিশ সূত্রে পাওয়া খবর থেকে জানতে পারে আছে এই চার অভিযুক্তকে আপাতত চেরাপল্লীর একটি জেল গারদে রাখা হয়েছে। শুধু তাই নয় এই অভিযুক্তদের জেরে আপাতত বাড়ানো হয়েছে জেলের নিরাপত্তাকেও। এই বিষয়ে জেলের এক আধিকারিক সংবাদমাধ্যমকে জানান অভিযুক্তরা জেলে বিনিদ্র রাত কাটাচ্ছে আর জেলের  নিয়ম অনুযায়ী ওদের দুপুরে ভাত-ডাল ও রাতে মটন কারির সঙ্গে ভাত দেওয়া হচ্ছে। গত বুধবার দিন রাতে তেলেঙ্গানার সাধনগরের সামশাবাদের কাছে ধর্ষণ করে খুন করা হয় এক 26 বছর বয়সী তরুণী পশু চিকিৎসকের। খবর সূত্রে জানতে পাওয়া যায় এই তরুণী চিকিৎসক হায়দ্রাবাদের সাধনগরের সামশাবাদের টোলপ্লাজায় নিজের স্কুটিটি রেখে একজন ত্বকের চিকিৎসকের কাছে যান। বাড়ি ফেরার সময় রাত্রি নটা নাগাদ যখন তিনি সেই জায়গায় পৌঁছান দেখেন তিনি তার স্কুটির একটি চাকা পামচার অবস্থায় রয়েছে। এই ঘটনা দেখে নিজের বোনকে ফোন করেন ওই তরুণী, ফোনে যোগাযোগ করার সময় শেষবার ভয় লাগছে বলে জানান নিজের বোনকে।

এরপরই তার ফোন সুইচ অফ হয়ে যায়। ফোন অন না পেয়ে কিছুক্ষণ পরেই তার পরিবারের লোক তার খোঁজ করার জন্য থানায় যায় কিন্তু সেখানে গিয়েও তাদের একথানা থেকে অন্য থানা গিয়ে হয়রানির শিকার হতে হয়। পরের দিন ভোর সকালের ওই তরুণী পশু চিকিৎসককে ধর্ষণ করে খুন করার ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। তারপর শুক্রবার দিন এই ঘটনার জেরে 4 অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আপাতত 14 দিনের জেল হেফাজতে রয়েছে এই অভিযুক্তরা। অন্যদিকে হায়দ্রাবাদ কোর্টের তরফ থেকে এই ঘটনা দ্রুত রায় মেলার দরুন নিষ্পতি ফাস্ট ট্রাক কোর্ট গঠন করা হয়েছে।