ভিডিয়ো: রানাঘাটের স্টেশন থেকে বলিউডে প্লে ব্যাক, হিমেশের সুরে গাইলেন রানু

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে রাতারাতি সেলিব্রিটির তকমা পেয়ে যাওয়া নদিয়ার রানু মণ্ডল গান রেকর্ড করলেন বলিউড সিঙ্গার হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে।গত জুলাই মাসের 20 তারিখে সোশ্যাল মিডিয়ায় লতাজির একটি গান গেয়ে রাতারাতি বিখ্যাত হয়ে যান রানু মন্ডল। আর গত এক মাসে এই ভিডিওটি ভিউয়ার এর সংখ্যা প্রায় কোটি পার করে গেছে।তবে শুধু তাই নয় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বিভিন্ন নামিদামি গুণী শিল্পীরা ও তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন।

সেই রানুকে সুপারস্টার সিঙ্গার-এর মঞ্চে দাঁড়িয়ে গান রেকর্ডিংয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন হিমেশ। প্রতিভা থাকলে ভাগ্য বদলাতে বেশি সময় লাগে না আর ঠিক সেটাই এখানে লক্ষ্য করা গেছে। এই রানাঘাটের রাণু মণ্ডলের জীবন বদলে দিল একটা ভাইরাল ভিডিয়ো।তাঁর কণ্ঠে লতা মঙ্গেশকরের গান রাজ্যের গণ্ডি ছাপিয়ে সুনাম কুড়িয়েছে গোটা দেশে। এবার তার কন্ঠই শোনা যাবে সিনেমার প্লে-ব্যাকে।

তাও আবার বলিউডের নামজাদা সুরকার হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে ডুয়েট। হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হীর’ নামে হিমেশের একটি ছবি প্রায় মুক্তির অপেক্ষায় আর এই ছবির মধ্যে একটি গানের সুর দিচ্ছেন রানু। আর অন্যদিকে এই ছবির লীড এক্টার রূপে রয়েছেন স্বয়ং হিমেশ রেশমিয়া নিজেই।এই ছবিতেই প্লে ব্যাক করছেন রানু মণ্ডল। গাইছেন, তেরি মেরি, তেরি মেরি কাহানি… এর আগে রানাঘাট স্টেশনে যাত্রীদের আবদারে লতা মঙ্গেশকরের গান গাইতেন রানু মণ্ডল। তারপর হঠাৎই এক ব্যক্তি কুড়ি জুলাই তার গানের ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে রাতারাতি ভাইরাল হয়ে যায় তার ভিডিও আর তারপর থেকে তাকে কলকাতা, মুম্বই, কেরল এমনকি বাংলাদেশ থেকেও গান গাওয়ার ডাক আসতে থাকে।এরপর মুম্বইয়ের একটি রিয়েলিটি শোতে গান গাওয়ার আমন্ত্রণও পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তার পরিচয়পত্র না থাকায় সমস্যা হয়। মুম্বইয়ের বাবুল মণ্ডলের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল রানু মণ্ডলের।

স্বামী মারা যাওয়ার পর রানাঘাটে ফিরে আসেন তিনি। রেল স্টেশনে ঘুরে ঘুরেই গান গাইতেন তিনি। তারপর… সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হল ভিডিয়ো… আর তারপরের ঘটনা তো সবার জানায়..

Related Articles

Close