মমতার জন্য রামচরিতমানস পাঠালেন বারাণসীর পুরোহিত,আর তারপরই…

বেশ কয়েকদিন ধরেই তাঁর রামাতঙ্ক দেখা দিয়েছে। এ এক অদ্ভুত রোগ হয়েছে তাঁর। কেউ জয় শ্রীরাম বললেই কেমন যেন উত্তেজিত হয়ে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যেপাধ্যায়। ভোটের মধ্যে ও ভোটের পরে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে রাজ্যে। প্রথমে পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোনা ও পরে দক্ষিণ ২৪ পরগনার নৈহাটিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি কর্মী, সমর্থকদের ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনী শুনে কনভয় থামিয়ে রাস্তায় নেমে আসেন।

দুই ক্ষেত্রেই স্লোগান দেওয়ার অপরাধে গ্রেফতার করা হয়। এর পর থেকেই শুরু হয় বিতর্ক। ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগানের পাল্টা ‘জয় বাংলা’ স্লোগান তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। একদিকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশে বিজেপির পক্ষ থেকে ‘জয় শ্রীরাম’ লেখা পোস্ট কার্ড যাচ্ছে। অন্য দিকে, নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশে বাংলা থেকে ‘জয় বাংলা’ লেখা পোস্ট কার্ড দিল্লি পাঠাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। হোয়টাসঅ্যাপেও চলছে স্লোগান রাজনীতি।

তবে এই পুরো ঘটনাটিই চলছিল রাজ্যের ভেতরেই। এবার খবর এল রাজ্যের বাইরে থেকে। বারাণসীর পাতালপুরী মন্দিরের পুরহিত মহন্ত বালক দাস সংবাদসংস্থা এএনআইকে বলেছেন, ‘ওনার বুদ্ধির শুদ্ধিকরণ হবে রামায়ন পাঠ করলে। উনি যে কেউ ‘জয় শ্রীরাম’ বললে তাদের তাড়া করছেন। এটা থেকে বোঝা যাচ্ছে ওনার মনের অবস্থা। রামের প্রতি তাঁর এই ঘৃণা একদিন পতনের কারণ হবে। সেই কারণেই আমি একটি রামচরিতমানস বই ওনাকে ডাকযোগে করে পাঠিয়েছি। তাঁকে ওই বই পড়ার অনুরোধ করেছি। এটাই তাঁর মন ঠিক করতে পারে। রামকে জানলে মন শুদ্ধ হয়।’

keya Mondal

Keya Mondal, follower of truth, student of politics and governance.Graduted in Sanskrit . Email: keyamondal.india@gmail.com

Related Articles

Close