আগামী ২৪ ঘণ্টায় আরো নামতে চলেছে তাপমাত্রার পারদ, রাজ্যের একাধিক জেলাতে বৃষ্টির পূর্বাভাস

বৃষ্টি যেন আমাদের পিছু ছাড়ছে না। শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা,শরৎ, হেমন্ত সারা বছর কখনো না কখনো বৃষ্টি পড়েই চলেছে। পৌষ সংক্রান্তির সারা দিন বৃষ্টি সাধারণ মানুষের ঘুড়ি ওড়ানোর মজা নষ্ট করে দিল। তিন দিন আবহাওয়া শুষ্ক থাকার পর আরো একবার ২১ জানুয়ারি থেকে উপকূলবর্তী জেলা অর্থাৎ দুই মেদিনীপুর এবং দুই ২৪ পরগনা জেলায় হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে, এমনটাই জানিয়েছেন আবহাওয়া দপ্তর।

গত নভেম্বরে এই বৃষ্টির জন্য সেই ভাবে শীত প্রবেশ করতে পারছিল না আমাদের পশ্চিমবঙ্গে। নিম্নচাপ কেটে যাবার পর হু হু করে ঠান্ডা ঢুকেছে। পৌষ মাসের পর এবার মাঘ মাসে আরো একবার বৃষ্টির ভ্রুকুটি রাজ্য দেখা যাবে। বৃষ্টির হাত থেকে রেহাই পাবে না উত্তরবঙ্গও।

আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী তিনদিন দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে শুষ্ক আবহাওয়া থাকবে। ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত সেই ভাবে তাপমাত্রার কোন উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে না। ২১ জানুয়ারি থেকে বৃষ্টির ফলে ফের বাড়বে রাতের তাপমাত্রা।

অন্যদিকে উত্তরবঙ্গে দার্জিলিং এবং কালিম্পং এর জেলাতে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ২০ জানুয়ারি উত্তরের পাঁচটি জেলা যেমন দার্জিলিং, কালিম্পং, কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার এবং জলপাইগুড়িতে হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। উত্তরবঙ্গে আগামী দুদিন তেমন তাপমাত্রার পরিবর্তন না থাকলেও তাপমাত্রা বাড়বে তার পর থেকেই। রাজ্যের প্রায় সব জায়গায় সকালের দিকে কুয়াশা থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আজ কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২২.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি কম। শীতের আমেজ থেকে এখনই বঞ্চিত থাকবেন না সাধারণ মানুষ। বৃষ্টি কমে গেলে আরো একবার শেষবারের মতো শীতের আমেজ উপভোগ করতে পারবেন বঙ্গবাসী, এমনটাই মনে করছেন আবহাওয়া দপ্তরের কর্মকর্তারা।