রেলমন্ত্রকের বড় ঘোষণা! দেশে করোনা মোকাবিলাতে ভারতীয় সেনার জন্য চলবে বিশেষ ট্রেন…

করোনা মোকাবিলায় ভারতীয় সেনারাও দিনরাত কাজ করছে। তাই ভারতীয় সেনাদের যাতে যাতায়াতে কোন রকম অসুবিধা না হয় তার জন্য বিশেষ পদক্ষেপ নেওয়া হল ভারতীয় রেলের তরফ থেকে। এই লকডাউনের সময়  যাতায়াতের সমস্ত জায়গায় বন্ধ রয়েছে, তাই ভারতীয় সেনাদের যাতায়াত অসুবিধা হচ্ছে। তাদের যাতে অসুবিধা না হয় তাই দুটি বিশেষ ধরনের ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় রেল। 17 এপ্রিল এবং 18 এপ্রিল অর্থাৎ শুক্রবার এবং শনিবার এই দুদিন ট্রেন দুটি চলবে।

এই ইস্যুতে কেন্দ্রের তরফ থেকে ছাড়পত্র পাওয়া গেছে এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকেও এই অনুমতি এসেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এনিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের এক আধিকারিক জানান, শুধুমাত্র সেনাকর্মীরা এই ট্রেন ব্যবহার করতে পারবেন। কোন সাধারণ নাগরিককে এই ট্রেন ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না। নর্দার্ন এবং ইস্টার্ন সীমান্তে সেনা আধিকারিকদের যাতায়াতের জন্য এই দুটি ট্রেন চালানো হবে। 17 তারিখ বেঙ্গালুরু-বেলগাম- সেকেন্দ্রাবাদ- অম্বালা- জম্মু রুটে একটি ট্রেন চালানো হবে এবং অন্য ট্রেনটি 18 তারিখ বেঙ্গালুরু-বেলগাম- সেকেন্দ্রাবাদ -গোপালপুর- হাওড়া- এনজেপি(নিউ জলপাইগুড়ি)-গুয়াহাটি রুটে চলবে।রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, ট্রেনে ওঠার আগে সমস্ত সেনা কর্মীদের শারীরিক পরীক্ষা হবে। প্রায় 100 জন সেনা কর্মী বর্তমানে বেঙ্গালুরু, সেকেন্দ্রাবাদ, গোপালপুর ও বেলগামে প্রশিক্ষণ শিবিরে রয়েছেন। তাদেরও সুবিধার কথা মাথায় রেখেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে রেলের তরফ থেকে। প্রথমে এই দুটি ট্রেন চলল পরে আরো বিশেষ ট্রেন চালানো হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার টুইট করে রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেওয়া যে আগামী 3 মে পর্যন্ত সমস্ত প্যাসেঞ্জার ট্রেন থেকে শুরু করে এক্সপ্রেস ট্রেন বন্ধ থাকবে। এর পাশাপাশি টুইট করে আরও বলা হয়, এই পুরো ব্যাপারটা আপনারা জানুন এবং ভুল খবর প্রতিরোধ করতে আমাদের সাহায্য করুন।
রেলের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, যারা অনলাইনে টিকিট কেটেছিলেন তাদের পুরো টাকা রিফান্ড দিয়ে দেওয়া হবে। এছাড়াও যারা সরাসরি কাউন্টার থেকে টিকিট বুক করেছিলেন, তারা 31 জুলাই পর্যন্ত টাকা ফেরত নিতে পারবেন।