মোদির “জনতা কার্ফু”- ডাকে সাড়া দিয়ে আগামী রবিবার দিন দেশজুড়ে বন্ধ থাকবে রেল পরিষেবা

করোনাভাইরাস ঠেকাতে একের পর এক পদক্ষেপ নিয়ে চলেছে আমাদের দেশ। এবার করোনা ঠেকাতে নতুন পদক্ষেপ নিল নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই রবিবার ‘জনতা কারফিউ’ এর ডাক দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ডাকে সকলেই সাড়া দিয়েছেন। সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতারা প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। তারা মনে করেন করোনা ঠেকাতে এই জনতা কারফিউ পালন করা আমাদের প্রয়োজন।

রেলের তরফ থেকেও সমস্ত পরিষেবা এদিন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সমস্ত প্যাসেঞ্জার ট্রেন ও মিল বন্ধ থাকবে রবিবারে। এমনকি মেট্রো পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রবিবার সকাল 7 টা থেকে রাত 9 টা পর্যন্ত জনতা কারফিউ থাকবে। যার ফলে সারাদেশ স্তব্ধ থাকবে। রাস্তাঘাটে আর আগের মত ভিড় থাকবে না। বন্ধ থাকবে সব দোকানপাট, যান চলাচল।

সংক্রমণ রুখতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে রেল পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে। শনিবার মধ্যরাত থেকে লোকাল ট্রেন বন্ধ থাকবে। রবিবার ভোর চারটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত মেল ট্রেন এবং প্যাসেঞ্জার ট্রেন বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। ফলে এ দিন কোন ট্রেন চলবে না। এছাড়াও কেরলের এবং দিল্লির মেট্রো পরিষেবা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ থাকবে দিন। কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নও কেরলে রেল পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

যার ফলে গন্তব্যস্থলে কিছুটা হলেও অসুবিধা সৃষ্টি করতে পারে যাত্রীদের। এমনটাই মনে করছেন অনেকেই। অনেকেই এমন আছেন যারা শনিবার বেরিয়ে গন্তব্যস্থলে পৌঁছানোর জন্য রবিবার ট্রেন ধরবেন। এমন যাত্রীদের প্রচুর অসুবিধার মুখে পড়তে হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। কারণ কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখার। এছাড়াও শনিবার রাত থেকে লোকাল ট্রেন বন্ধ থাকছে ফলে বড় স্টেশনের নামার পর যে সমস্ত যাত্রীরা কম দূরত্বের জন্য লোকাল ট্রেন ধরে বাড়িতে পৌঁছায় তাদের জন্য খুবই অসুবিধা হয়ে দাঁড়াবে কারণ শনিবার মধ্যরাত থেকে লোকাল ট্রেন বন্ধ থাকছে। ফলে এই রবিবার দেশবাসী গৃহবন্দি হয়ে থাকবে।