স্বাধীনতার পর সবচেয়ে বড় সংকট! দেশে কাজ হারাবে 14 কোটি ভারতীয়: রঘুরাম রাজন..

দেশে করোনা সংক্রমণ রুখতে আগামী 14 এপ্রিল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকে জারি রয়েছে 21 দিনের লকডাউন। করোনা সংক্রমণ যাতে দেশে অধিক মাত্রাই ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য কেন্দ্র সরকার সহ রাজ্য সরকার গুলি একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করছে এ বিষয়ে। আর এই লকডাউনের জেরে একপ্রকার স্তব্ধ রয়েছে গোটা দেশের বাজার।আর এই বাজার যে কবে আবার চাঙ্গা হবে তা কেউ জানে না তাই এরকম এক সংকট কে গত কয়েক দশকের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ বলে উল্লেখ করলেন রিজার্ভ ব্যাংকের প্রাক্তন গভর্নর তথা অর্থনীতিবিদ রঘুরাম রাজন।

এই দিন তিনি জানান শুধুমাত্র এই কোরোনার কারণে চাকরি যেতে পারে দেশের 13 কোটি 60 লক্ষ ভারতীয়র। তিনি জানান এর আগে ভারতের সবচেয়ে বড় সংকট শীর্ষক দাঁড়িয়েছিল 2008 থেকে 2009 সালের বাজার পড়ে যাওয়ায় যে চাহিদা ছিল তা তলানিতে চলে গিয়েছিল।তবু সেই সময় দেশে যারা কর্মীরা ছিলেন তারা কাজে যেতে পারতেন কারণ আমাদের সরকারের আর্থিক কাঠামো শক্তপোক্ত ছিল তাই খুব দ্রুত সে ব্যবস্থার ফলে সেটি উন্নতি ঘটেছিল এর পাশাপাশি আমাদের গোটা আর্থিক পরিস্থিতি তাই অনুকুল ছিল।

তবে এবার যে পরিস্থিতির সামনে আমরা দাঁড়িয়ে রয়েছি তার উল্লেখ করতে গিয়ে তিনি বলেন লকডাউন পেরিও যদি এই মরন ভাইরাস করোনার মোকাবেলা না করা যায় তাহলে এরজন্য অন্য পথ খুঁজে বের করতে হবে।এ বিষয়ে আমাদের ভাবতে হবে লকডাউন এ পড়ে কীভাবে লড়া যায়, তাছাড়া আরো বেশি সময় দেশকে লকডাউন রাখা প্রায় অসম্ভব ব্যাপার। তাই সময় থাকতে অপেক্ষাকৃত কম সংক্রমিত অঞ্চলগুলিতে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়ে কাজ শুরু করে দিতে হবে।

প্রসঙ্গত বলে রাখি এই মুহূর্তে ভারতে এই করোনা ভাইরাসের জেরে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 3 হাজার 588 জন আর এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ভারতে মারা গেছে 99 জন। আর অন্যদিকে গোটা বিশ্বে এই করোনাভাইরাস এই জেরে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে প্রায় 12 লাখ, আর গোটা বিশ্বজুড়ে এই ভাইরাসের জেরে মৃত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 65 হাজার 872 জন।