বিরাটকে নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে ভালোই করেছে! রবি শাস্ত্রীর বেফাঁস মন্তব্যে আবারো তুলকালাম

বেশ কিছুদিন ধরেই বিরাট কোহলিকে নিয়ে উত্তেজনা উঠেছিল তুঙ্গে। বিরাট কোহলিকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া নিয়ে অভিযোগের তীর উঠেছিল সৌরভ গাঙ্গুলীর বিরুদ্ধে। যদিও সারা বঙ্গবাসী সৌরভ গাঙ্গুলীর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন এই প্রসঙ্গে। তবে এবার এই বিতর্কিত প্রসঙ্গে নতুন একটি মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে উঠে এলেন ভারতের প্রাক্তন কোচ রবি শাস্ত্রী।

তিনি বলেন, “এটাই সঠিক সিদ্ধান্ত। বিরাট কোহলি এবং রোহিত শর্মা, দুজনের জন্যই এটি ভীষণভাবে ভালো প্রমাণিত হতে চলেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে বায়ো বাবলে কাটিয়ে একজনের পক্ষে তিন ফরমাটে নেতৃত্ব চালিয়ে যাওয়ার মোটেই সহজ কাজ নয়। আপাতত বিরাট ইচ্ছামত টেস্টে ফোকাস করতে পারে। বিরাটের মধ্যে এখনও পাঁচ-ছয় বছরের ক্রিকেট অবশিষ্ট রয়েছে। নিজের রানের খিদে বাড়ানোর জন্য পর্যাপ্ত সময় পাবে ও”।

বোর্ডের এই পদক্ষেপে পরিপ্রেক্ষিতে রবি শাস্ত্রী জানান, “কোহলিকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অধিনায়কত্ব থেকে সরে যেতে নিষেধ করা হয়েছিল। কিন্তু বিরাট কোহলি কোন কথা শোনেনি। তাই এই পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছে বোর্ড। তবে পরিস্থিতি আরো ভালোভাবে সামলাতে পারত বোর্ড। বিরাট এই ইস্যুতে নিজের বক্তব্য জানিয়েছে। বোর্ডের উচিত ছিল নিজের বক্তব্য পরিষ্কার করা। এতে ভুল বুঝাবুঝি অনেক কম হয়”।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বিরাট কোহলি জানান, অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেবার আগে তাঁকে নাকি কোনো কথা বলা হয়নি। যেখানে অন্যদিকে সৌরভ গাঙ্গুলী আগেই জানিয়েছিলেন, বিরাট কোহলির সঙ্গে পরামর্শ নিয়েই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একদিকে বোর্ড আরেকদিকে অধিনায়ক, দুজনের দুই রকম বক্তব্য প্রকাশ্যে আসার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের ঝড় উঠে যায়। এবার এই বিতর্ককে সামনে রেখে আরো একটি বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন রবি শাস্ত্রী।