‘পূজো হবেই, তবে সাবধানে’- পূজো থেকে বির্সজন দূর্গাপূজায় একগুচ্ছ গাইডলাইন রাজ্য সরকারের

প্রতিবছরের মতো এবারও চলে এলো বাঙালীর সবচেয়ে বড়ো উৎসব দুর্গা পুজো (durga puja)। কিন্তু ২০২০ সালের যেরকমভাবে নিয়মাবলি ছিল, বর্তমান সময়ে করোনার প্রভাব কিছুটা কম হলেও, পুজোর সময় বেশকিছু নতুন নির্দেশিকা জারী করল নবান্ন।করোনার পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এই সকল নিয়মাবলি অবশ্যই প্রত্যেকেই পালন করতে হবে,এমনই নয়া নির্দেশিকা জারী করেছে রাজ্য সরকার। সরকার-এর এই নয়া নির্দেশিকায় বলা হয়েছে,

সেগুলির নিম্নরূপ – …

  • পুজোর প্যান্ডেল করতে হবে খোলা মেলা। যাতে সেখানে দর্শনার্থীদের দাঁড়ানোর অনেক জায়গা থাকে। আলাদা আলাদা করে প্রবেশ এবং প্রস্থানের গেট করতে হবে বলেও জানিয়েছে এবং সামাজিক দূরত্বও বজায় রাখতে হবে।
  • মন্ত্রোচ্চারণের সময় মাইক্রোফোন অবশ্যই ব্যবহার করতে হবে পুরোহিতদের। অঞ্জলি, সিঁদুরখেলা বা দেবীবরণের সময় ছোট ছোট সারিতে ভাগ করে করতে হবে।অঞ্জলির সময় অঞ্জলির ফুল সবাইকে বাড়ি থেকে নিয়ে আসতে হবে।

  • মন্ডপ পরিচালনার জন্য বেশি সংখ্যাক স্বেচ্ছাসেবক থাকতে হবে মণ্ডপে। দর্শণার্থীদের পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবকদেরও স্যানিটাইজার এবং মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। সামাজিক দূরত্বও মেনে চলতে হবে প্রত্যেককেই।
  •  পুজো উদ্বোধন কিংবা বিসর্জনএর সময় বেশি ভিড় জমায়েত করা যাবে না। মণ্ডপ থেকে প্রতিমা সরাসরি ঘাটে এনে প্রতিমা নিরঞ্জন নির্দিষ্ট সময় মেনশন মেনেই করতে হবে।
  • পুজো মন্ডপে করা যাবে না সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
  • পুজো মন্ডপে কোনরকম করা যাবে না সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

Advertisements
  • বৈদ্যুতিন এবং সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভিড় কমানোর পরামর্শ দিয়ে যেতে হবে অনবরত।
  • পুজো বিষয়ক সমস্ত অনুমতি অনলাইনে মাধ্যমেই নিতে হবে।
  • পুজো মন্ডপ দর্শন করতে দেওয়া হবে তৃতীয়া থেকে।
  • পুজো কমিটিগুলিকে ৫০ হাজার টাকা আর্থিক সাহায্য করবে রাজ্য সরকার।
  • প্রতিবারের মতো এবারেও করা যাবে না কার্নিভাল।
  • এই সমস্ত নিয়মাবলী সকলকেই অবশ্যই মেনে চলতে হবে।

Advertisements