আফগানিস্তান প্রসঙ্গে ভারতীয় মুসলিমদের একাংশের উচ্ছ্বাস, দ্বিচারিতার তকমা দিলেন বিশিষ্টরা

আফগানিস্তানের তালিবান ত্রাস নিয়ে কমবেশি বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন মত প্রকাশ করেছে। ভারত বরাবরই আফগানিস্তানের সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছে। তবে এইবার আফগানিস্তান নিয়ে ভারতের কিছু মুসলিমদের মাত্রাধিক উচ্ছ্বাসে বিরক্তি প্রকাশ করলেন বিশিষ্ট ব্যক্তিরা । তাঁদের দাবি একদিকে ধর্মনিরপেক্ষতা চাইবো আবার অপরদিকে শরিয়া আইনের প্রশংসা করবো এই দুটো একসঙ্গে চলতে পারে না এটা দ্বিচারিতা ছাড়া আর কিছুই নয় ।

ইন্ডিয়ান মুসলিম ফর সেকুলার ডেমোক্রেসির একটি বিবৃতিতে এই তথ্য উঠে এসেছে। এই বিবৃতিতে বেশকিছু বিশিষ্টজনেরা সই করেছেন ,যেমন জাভেদ আখতার ,জোয়া আখতার ,শাবানা আজমি ,আমির রিজভি এবং নাসিরুদ্দিন শাহ ইত্যাদির মতো সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা । প্রায় ১২৮ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি এই বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেছেন বলে জানা যাচ্ছে। তাদের সবারই বক্তব্য বিশ্বের যেকোন প্রান্তে ধর্ম রাষ্ট্রের ভাবনাকে বাতিল করা উচিত।

আফগানিস্তানে তালেবানদের দখলের পর ভারতের বেশকিছু মুসলিমদের উচ্ছ্বাস প্রকাশ কে ঘিরে যথেষ্ট বিরক্তি প্রকাশ করেছেন অল ইন্ডিয়া পার্সোনাল ল বোর্ডের সদস্যরা। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন মৌলানা উমেরন মাহফুজ রহমানি এবং মৌলানা সাজ্জাদ নোমানি। বিশিষ্ট দের মতে এটা দ্বিচারিতা এবং সুবিধাবাদী মানসিকতা ছাড়া আর কিছুই নয়। ভারতের মুসলিমরা সংখ্যালঘু । তাই জন্য যেখানে মুসলিমরা সংখ্যায় কম সেখানে ধর্মনিরপেক্ষতার কথা শোনা যাচ্ছে আবার সংখ্যাগরিষ্ঠ এলাকায় শরীয়ত আইনের শরণাপন্ন হতে চাইছে মুসলিমরা।

এখানে নিজের সুবিধামতো ক্ষেত্র অনুযায়ী আইন ঠিক করা হচ্ছে যেটা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয় । এই ধরনের দ্বিচারিতা হিন্দু রাষ্ট্রের দাবি কে বৈধতা দেয়।অল ইন্ডিয়া পার্সোনাল ল বোর্ডের তরফ থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তালিবান এবং আফগানিস্থানে উদ্ভূত বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কোন কোন মত তারা দেননি। যে সমস্ত সদস্যরা এ বিষয়ে মত প্রকাশ করেছেন তা তাদের বোর্ডের সদস্য নয়। তালিবানরা মূলত ইসলাম ধর্মের বর্বর সংস্করণ।

দুর্নীতিগ্রস্ত আইনের যাঁতাকলে পড়ে আছে সাধারণ নারী এবং পুরুষরা। আফগানিস্তানের সাধারন মানুষদের জীবনে যে চরম দূর্দশার দিন নেমে এসেছে এবং মহিলারা যে নরক যন্ত্রণা ভোগ করছে বিশিষ্ট জনেরা কখনোই এই পরিস্থিতির পক্ষে নয় । তারা সর্বৈব ভাবে চাইছেন সাধারণ মানুষ যেন এই চরম দুর্দশাগ্রস্ত জীবন থেকে মুক্তি পায়।