দশম শ্রেণীতে প্রেমে পড়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, প্রেমিকের সাথে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্তের সময় হাতে নাতে ধরেছিলেন মাসি

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এমন একজন অভিনেত্রী যিনি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন সারা বিশ্বব্যাপী। বিশ্বসুন্দরী এই অভিনেত্রী বলিউডে নিজের পরিচয় তৈরি করার পর বলিউডে চলে গেছে নিজের পরিচয় তৈরি করার জন্য এবং সেটিও সফলভাবে তৈরি করতে পেরেছেন। ইতিমধ্যেই আমেরিকায় স্বামীর সঙ্গে সেটেল হয়েছেন তিনি। বেশ কয়েকটি ওয়েব সিরিজ সহ কয়েকটি শোতে কাজ করেছেন তিনি। এই গ্লোবাল আইকন বহু মানুষের আইডল।

এই প্রতিবেদনের দ্বারা প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার জীবনের এমন একটি ঘটনা আপনাদের সকলের সামনে তুলে ধরব যা এতদিন আপনাদের কাছে ছিল অজানা। এই ঘটনাটি প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নিজের আত্মজীবনীতে তুলে ধরেছেন সকলের সামনে। বইটির লেখিকা স্বয়ং প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এই বইতে তিনি আমেরিকায় থাকাকালীন এমন একটি ঘটনা শেয়ার করেছেন যা এতদিন কেউ জানত না।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া বইতে লিখেছেন, আমেরিকায় নিজের পিসির বাড়িতে থেকে বেশ কয়েক বছর স্কুলিং করেছিলেন তিনি। দশম শ্রেণীতে পড়ার সময় তাঁর একজন বয়ফ্রেন্ড ছিলেন যার নাম বব। কোন একদিন পিসি যখন বাড়িতে ছিলেন না তখন বব এসেছিলেন বাড়িতে। প্রিয়াঙ্কা এবং বব একসঙ্গে বসে টিভি দেখছিলেন এবং একান্ত সময় কাটাচ্ছিলেন।

এমন সময় হঠাৎ করে প্রিয়াঙ্কার পিসি চলে আসেন বাড়িতে এবং সময় না থাকার জন্য প্রিয়াংকা তাঁর বয়ফ্রেন্ডকে আলমারিতে লুকিয়ে রাখেন। পিসি ঘরে ঢুকেই কিছু একটা সন্দেহ করায় সঙ্গে সঙ্গে আলমারি খুলে দেখতে পান একটি ছেলে লুকিয়ে রয়েছে আলমারিতে। এই ঘটনার ফলে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার পিসি ভীষণভাবে রেগে যান এবং প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বাড়িতে সমস্ত ঘটনাটি জানান। স্বাভাবিকভাবেই অভিনেত্রীর পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি হয় এবং প্রিয়াংকাকে ফিরে আসতে হয় ভারতবর্ষে।

প্রসঙ্গত, এই বইতে অভিনেত্রীর জীবনের নানান অজানা কথা আমরা জানতে পেরেছি। বইটিতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া নিজের জীবনের এমন অনেক ঘটনা শেয়ার করেছেন সকলের সামনে যা তিনি কখনো কাউকে বলতে পারেননি।