দেশনতুন খবরবিশেষব্যবসা

রেলের বেসরকারিকরণ হবে না, অযথা গুজবে কান দেবেন না! কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল….

কিছুদিন আগে একটি গুজব চারদিকে রটে গিয়েছিল যেখানে শোনা যাচ্ছিল মোদি সরকার নাকি এবার লাল কেল্লাকে বিক্রি করে দিচ্ছে তাও এক বেসরকারি কোম্পানির কাছে। যদিও পরবর্তীকালে সেই বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যায় যেখানে শোনা যায় যে শুধুমাত্র সরকার লালকেল্লা থেকে মেরামত ও সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য এক বেসরকারি কোম্পানিকে দায়িত্ব দিয়েছিল বিক্রি করার জন্য নয়। এবার লালকেল্লার পর ভারতীয় রেল সংক্রান্ত এক গুজব রটানো হচ্ছে যেখানে শোনা যাচ্ছে কেন্দ্র সরকার নাকি এবার রেলের প্রাইভেটাইজেশন করে দেবে।

আর এই গুজব ছড়িয়েছে কিছু উচ্চশ্রেণীর সংবাদমাধ্যম ও বিরোধী পক্ষ। আর তারপরই বিরোধীপক্ষ তাদের রাজনীতির জন্য কিছু উচ্চশ্রেণীর সংবাদমাধ্যম কে কাজে লাগিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার কাজ শুরু করেছে তাই এই নিয়ে একাধিক বেসরকারিকরণের ওপর আলোচনা করতে গিয়ে শুক্রবার দিন ভারতীয় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল একটি বড় বিবৃতি জারি করেছেন। যেখানে তিনি বলেছেন যে রেলপথ ভারত ও ভারতীয়দের সম্পত্তি এবং তা অব্যাহত থাকবে।

এইদিন পীযূষ গোয়েল রেলের বেসরকারিকরণ নিয়ে লাগাতার যে বিতর্ক অভ্রান্তি ছড়িয়ে পড়েছে তার ওপর বিবৃতি ও দেন। তিনি এই বিষয়টিকে অর্থাৎ রেলের বেসরকারিকরণের সম্ভাবনাকে সরাসরি প্রত্যাখান করে দেন। এই দিন তিনি জানান রেলকে বেসরকারীকরণ করা হচ্ছে না বরং যাত্রীদের আরো উন্নত সুবিধা দেওয়ার জন্য বেসরকারি সংস্থা গুলির বাণিজ্যিক ও অন বোর্ড পরিষেবা আউটসোর্সিং করছে।

সাথে সাথে এই দিন প্রশ্ন চলাকালীন তার জবাবে পীযূষ গোয়েল আরো জানান যে আগামী 12 বছরের রেলপথ পরিচালনার জন্য প্রায় 50 লক্ষ কোটি টাকা মূলধনের প্রয়োজন যা রেল কতৃপক্ষ একা করতে পারবে না, তাই এই জাতীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।শুধু এখানেই থেমে থাকেন নি তিনি এই দিন পীযূষ গোয়েল আরো বলেন যে আমাদের এখন উদ্দেশ্য হলো যাত্রীদের উন্নত মানের পরিষেবা এবং সুবিধা প্রদান করা তবে তা রেলের বেসরকারি করণের মাধ্যমে নয়।

ভারতীয় রেলপথ হলো ভারত এবং ভারতবাসীর সম্পত্তি এবং তা অব্যাহত থাকবে ভবিষ্যতেও এই দিন তিনি বাজারের চাপ ও অন্যান্য সমস্যার কথা উল্লেখ করে দিয়ে বলেন প্রতিদিন সংসদ সদস্যরা আমার কাছে রেললাইন ও উন্নতর পরিষেবা চাইছে। আর পরবর্তী 12 বছরে রেলের পক্ষে 50 লক্ষ কোটি টাকা যোগাড় করা সম্ভব নয় তা আমরা সকলেই খুব ভালভাবেই জানি। তাই বেসরকারি সংস্থাগুলির বাণিজ্যিক ও অনবোর্ড পরিষেবা আউটসোর্সিং করার ওপর পদক্ষেপ নিয়েছে।তবে শুধু তাই নয় এখন ভবিষ্যতে যাত্রীদের ক্রমবর্ধমান ভীড়কে মোকাবেলা করার জন্য হাজার হাজার নতুন ট্রেন এবং সর্বাধিক বিনিয়োগের কথা জানান এইদিন রেলমন্ত্রী।

উনি বলেন যদি বেসরকারি সংস্থা গুলি রেলওয়েতে বিনিয়োগ করতে ইচ্ছুক থাকে তাহলে যাত্রীদের এবং উপভোক্তাদের এই ক্ষেত্রে লাভ হবে।তবে এই ক্ষেত্রে শুধুমাত্র বেসরকারি সংস্থাগুলিকে কেবল বাণিজ্যিক এবং অন বোর্ড পরিষেবা আউটসোর্সিং করছি কিন্তু মালিকানার রেলওয়ের কাছেই থাকবে আমরা কেবলমাত্র তাদের লাইসেন্স দিচ্ছি।

Related Articles

Back to top button