নাম না করে পাকিস্তানকে কড়া ভাষায় আক্রমণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির, বললেন গোটা বিশ্ব যখন করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ছে তখন..

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যা সম্পর্ক তা কারও জানতে বাকি নেই। আর তাছাড়া গোটা বিশ্ব যখন মরণ ভাইরাস করোনা দমনে উঠে পড়ে লেগেছে তখনও পাকিস্তান তাদের সন্ত্রাস ফেলানোর কাজ থেকে বাদ যাচ্ছে না। করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই পাকিস্তানকে বহুবার লক্ষ্য করা যাচ্ছে যুদ্ধবিরতি চুক্তি লংঘন করতে, তাছাড়া এই মরন ভাইরাস করোনায় আক্রান্ত পাকিস্তানি নাগরিকদেরকে একাধিকবার সীমান্তের মধ্যে দিয়ে ভারতে প্রবেশ করানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তারা।

আর এবার নাম না উল্লেখ করে আবারও এক হাতে নিলেন পাকিস্তানকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এইদিন নাম উল্লেখ না করে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী বলেন গোটা বিশ্ব যখন করোনাভাইরাস দমনের চেষ্টা করছি তখন কিছু দেশ সন্ত্রাসের মতো এই ভাইরাস ছড়িয়ে যাচ্ছে। তবে শুধু সন্ত্রাস নয় এ দিন প্রধানমন্ত্রী জানান ভুল ভাল ভিডিও ক্লিপ ছড়িয়ে দেশে একত্রা কে নষ্ট করার চেষ্টা করছে অনেক বহির্ভূত দেশ। আর সেসব দেশের বিরুদ্ধে একজোট হতে হবে এবার, তাই বলাই বাহুল্য এদিন পাকিস্তানকে নিশানা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

এর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী করোনার বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়াই করছে ভারত একথাও তুলে ধরেন। পাশাপাশি বলেন এই লড়াই গণতান্ত্রিক, বহুমাত্রিক এতে হয়েছে শৃংখলাবদ্ধ তা।আর একদিন এই মরন ভাইরাস করোনার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে পারবে গোটা বিশ্ব বলে তিনি আত্মপ্রকাশ করেন। এছাড়া বলে রাখি দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বভার সামলাবার পর থেকে তিনি প্রথম যোগ দিয়েছেন NAM সামিটে , এর আগে কোন বারই তিনি এই বৈঠকে যোগদান করেননি। গোটা বিশ্ব জুড়ে এখন মহামারি করোনা দাপট, আর যত দিন যাচ্ছে তত করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

ভারতে এই মরণ ভাইরাস ক্রমশ বিপদজনক পরিস্থিতি তৈরি করেছে। তবে এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান গোটা বিশ্বের কাছে এখন ভারত ফার্মাসি দেশে পরিণত হয়েছে, আর এখন ভারত প্রায় 123 টি দেশে ওষুধ সরবরাহ করেছে। করোনার জেরে এই মুহূর্তে দেশে এক ধাক্কায় মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 1566, এই মুহূর্তে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 46 হাজার 437 টি। আর রিপোর্ট অনুযায়ী জানা যাচ্ছে 46,437 জনের মধ্যে এখনো দেশে করোনা আক্রান্ত অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা রয়েছে 32,020 টি। তাছাড়া 12,847 জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন, আর কেন্দ্রের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী শেষ 24 ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ঘটেছে 72 জনের, এছাড়া নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা 2553 টি।