নতুন খবরবিশেষভারতীয় সেনা

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভারতীয় সেনার হাতে তুলে দিলেন এই আধুনিক অস্ত্রটি,যা দেখার পর ঘুম উড়ে গেল পাকিস্তান সহ বিরোধী দেশগুলির।

ভারতীয় সেনাদের শক্তি আরো বাড়ানোর জন্য আরো একটি অস্ত্র চলে এল এই শনিবার। মোদি সরকার সেনাদের সুরক্ষার কথা ভেবে এর আগে অনেক নতুন অস্ত্র শস্ত্র কিনেছেন। এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সেনাদের আরেকটি নতুন অস্ত্র উপহার দিলেন।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সেনাদের হাতে কে-9 বজ্র নামক আধুনিক ট্যাঙ্কটি সেনাদের হাতে তুলে দিলেন। এই অস্ত্রের বিশেষত্ব কি কতটা পরিমাণ ধ্বংস করতে পারবে শত্রুদের,আসুন তা জেনে নেওয়া যাক।পুরোপুরি ভাবে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি এই ট্যাঙ্কটি। এই ট্যাঙ্কটি গুজরাতের লারসন অ্যান্ড টুব্রো হাজিরা প্ল্যান্ট তৈরি হয়েছিল।


এই ট্যাঙ্কটি তৈরি করা হয়েছে 50 শতাংশ দেশী মেটেরিয়ালস থেকে। এল অ্যান্ড টি 2017 সালে এই ট্যাঙ্কটি তৈরি করার বরাত পেয়েছিল। দক্ষিণ কোরিয়ার হানওয়া টেক উইন নামক সংস্থা মিলিত ভাবে ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ র অধিনে এই আধুনিক ট্যাঙ্কটিকে তৈরি করা হয়েছে। এল অ্যান্ড টি মোট 100 টি ট্যাঙ্ক বানানোর বরাত পেয়েছে। এর মধ্যে 10 টি দক্ষিন কোরিয়া থেকে আনা হয়েছে। বাকি 90 টা ট্যাঙ্ক দেশেই তৈরি করবে এই সংস্থাটি। হাজিরা ছাড়াও সংস্থাটির পুনের তালেগাও প্লান্টে এই ট্যাঙ্ক গুলি তৈরি করা হচ্ছে। পুরো প্রজেক্টটিতে প্রায় সাড়ে 4 কোটি টাকার মতন খরচা হবে। 155 কিলোমিটার/52 ট্রাকড সেলফ প্রপেলড এই ট্যাঙ্কটি দক্ষিণ কোরিয়ার কে-9 থান্ডার এর মতন ভাবে তৈরি করা হয়েছে।

কে-9 বজ্র বিশ্বের সমস্ত ঘাতক ট্যাঙ্কগুলির মধ্যে একটি। শত্রুদের খুঁজে খুঁজে শেষ করার মতন ক্ষমতা রয়েছে এই ট্যাঙ্কটিতে। আবার এই ট্যাঙ্কটিকে ‘সেলফ প্রপেলড হোভারক্রাফ্ট গানও’ বলা হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ট্যাঙ্কটি ঘাতক ও ক্ষমতার দিক থেকে বিচার করলে বফোর্স ট্যাঙ্কটির থেকে অনেকগুণ বেশি শক্তিশালী। বফোর্স থেকে গুলি ছুড়তে কিছুটা সময় লাগে কিন্তু এই ট্যাঙ্কটি চোখের নিমেষে শত্রুদের খতম করে দেবে। এক কিলোমিটার দূর থেকে এই ট্যাঙ্কটি শত্রুদের ট্যাঙ্কের উপর হামলা করতে পারে। সর্বোচ্চ 38 কিলোমিটার দূরে থাকার শত্রুর উপর আঘাত আনতে পারে এই বজ্র ট্যাঙ্কটি।


এই বিধ্বংসী ট্যাঙ্কটি 30 সেকেন্ডে 3 গাউন্ড বার্স্ট ফায়ারিং, 3 মিনিটে 15 রাউন্ড ইনটেন্স ফায়ারিং এছাড়াও 60 মিনিটে 60 রাউন্ড সাসটেন্ড ফায়ারিং করতে সক্ষম। বিভিন্ন প্রতিকূল আবহাওয়া যেমন বরফে ঢাকা অঞ্চল, মরুভূমি, জঙ্গল বিভিন্ন জায়গাতে এই ট্যাঙ্কটি কাজ করার ক্ষমতা রাখে। এ বিধ্বংসী ট্যাঙ্কটির ওজন 47 টন, উচ্চতা 9 ফুট এবং দৈর্ঘ্য প্রায় 40 ফুটের কাছাকাছি।

Related Articles

Back to top button