কীভাবে বিজেপির আসনসংখ্যা ৯৯ পার করতে পারবে না, অংক কষে বুঝিয়ে দিলেন প্রশান্ত কিশোর

তৃণমূলের ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোর একটা টুইটে জানিয়েছেন 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির জেতার কোনো আশা নেই। অংকের হিসেবে বিজেপির পরাজয় নিশ্চিত। তিনি বলেন বিজেপি নিরানব্বইয়ের বেশি একটি আসনও পাবে না। তবে শুধু ধ্যান ধারণার উপর ভিত্তি করে বিজেপির আসন সংখ্যা নিয়ে ভবিষ্যৎবাণী তিনি করেননি। রীতিমতো অংক কষে তা দেখিয়েছেন।

যেভাবে দল থেকে লোকজন বিজেপিতে চলে যাচ্ছে এবং আগামী দিনেও যেতে পারে সেই সমস্ত দিক বিবেচনা করেই তিনি এই সিদ্ধান্তে এসেছেন। তিনি চ্যালেঞ্জ করে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন। প্রশান্ত কিশোর বলেন,” যদি আমার কথা মিথ্যা হয় তবে রাজনীতির আমি ছেড়ে দেবো। কিন্তু বিজেপি যদি তাদের লক্ষ্যে পৌঁছতে ব্যর্থ হয় রাজনীতি থেকে অবসর নেবেন নেতারা? ”

 

প্রশান্ত কিশোরের মতে, যতই আশা জাগাও বাংলায় ক্ষমতায় আসতে পারবে না বিজেপি। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকারে প্রশান্ত কিশোর ব্যাখ্যা করেন, কেন 99 এর মধ্যেই থাকবে বিজেপির আসন সংখ্যা। প্রায় 70 শতাংশ হিন্দু। 30 শতাংশ মুসলিম। বিজেপি শুধু টার্গেট করছে 70 শতাংশ হিন্দু ভোটারকে।

সত্যিই কী তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন বাবুল! ‌ফেসবুকে পোস্ট করে ব্যাখ্যা দিলেন নিজেই

তৃণমূলের যেখানে টার্গেট 100% ভোট, সেখানে বিজেপির 70%। নির্বাচনে লড়ার জন্য তৃণমূলের প্রায় 30 শতাংশ ভোটের মধ্যে 25% অর্জন করে ভোট ময়দানে নামছে তৃণমূল। বিজেপি যে 70 শতাংশ ভোট এর জন্য লড়াই করছে তার মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন সম্প্রদায়। যা ভাগ হবে তৃণমূল এবং বিজেপিকে কংগ্রেস ও সিপিএম এর মধ্যে।

2019 এর লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি 40 শতাংশ ভোট পেয়েছিল। তৃণমূল 2019 এ মোট 45 শতাংশ ভোট পেয়েছিল যার মধ্যে সংখ্যালঘু 25% হলে 20 শতাংশ সংখ্যাগুরুর ভোট৷ বর্তমান রাজনীতির প্রেক্ষাপটে বিজেপির ভোট বাড়বে না বরং কমতে পারে৷ তিনি বলেন 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হলে তার ভবিষ্যৎ বাণী মিলিয়ে নিতে। প্রশান্ত কিশোর চ্যালেঞ্জ করেছেন,” আপনারা সেভ করে রাখুন যদি বিজেপি থেকে ভালো কিছু করে আমি রাজনীতির এই পরিসর ছেড়ে দেবো।”বিজেপি নেতারা সমালোচনা করলে ফের প্রশান্ত কিশোর বলেন, “যারা গলা ফাটাচ্ছে, তারা রাজনীতি ছেড়ে দেবেন তো ফেল করলে! ”