পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কীমে বিনিয়োগ করলে মাসে মাসে পাবেন টাকা

চাকরিজীবি হোন কিংবা নিজের ব্যবসা, যর টাকাই আপনি আয় করুন না কেন, সঞ্চয় করা অত্যন্ত জরুরি৷ তাই  আপনার আয় থেকে কিছুটা হলেও সাশ্রয় করতে হবে৷ অর্থনৈতিক  বিশেষজ্ঞরা প্রায়শই সঞ্চয় ও বিনিয়োগের বিষয় নানা পরামর্শ দেন। বলা বাহুল্য আপনার কষ্ট এর উপার্জন কীভাবে আপনার উপকারে আসতে পারে তা আপনাকেই ভাবতে হবে৷ তাই  বিনিয়োগ ভেবে চিনতে করতে হবে৷ বিনিয়োগের জন্য খুব নিরাপদ ডাকঘর৷

 

এখানে আপনার অর্থ নিরাপদ থাকবে এবং আপনি আরও ভাল রিটার্ন পাবেন৷  করতে পারবেন। পোস্ট অফিসে মাসিক আয় প্রকল্প  (POMIS)  সরকারি  ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্প । যা আপনাকে প্রতি মাসে উপার্জনের সুযোগ করে  দেয়। এই স্কিমে বিনিয়োগ করে আপনি প্রতি মাসে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা উপার্জন করতে পারবেন। আপনি একক বা যৌথ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন এবং সেইমত টাকা জমা দিতে পারবেন।

আপনার বিনিয়োগের উপর উপার্জন নির্ভর করে৷ এই পরিকল্পনাটি 5 বছর,  তবে এটি আরও 5 বছরের জন্য বাড়ানো যেতে পারে। এখানে আপনার বিনিয়োগ 100 শতাংশ গ্যারান্টি রয়েছে।সকল ভারতীয় পোস্ট অফিসের মাসিক আয় প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে পারবেন।

কীভাবে পোস্ট অফিস এমআইএস স্কিমের অধীনে অ্যাকাউন্ট খোলা যায়?

একক এবং যৌথ অ্যাকাউন্ট উভয়ই খোলা যেতে পারে। একজনের ক্ষেত্রে সর্বাধিক সাড়ে চার লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে, এবং একটি যৌথ অ্যাকাউন্টে সর্বাধিক 9 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে। যৌথ অ্যাকাউন্ট  3 জন প্রাপ্ত বয়স্ক এর নাম ও  থাকতে পারে তবে বিনিয়োগের সীমা  9 লাখ।

Post office

একদম ঘরোয়া পদ্ধতিতে দূর করুন ব্ল্যাকহেডস, খরচ করতে হবে না পার্লারে হাজার হাজার টাকা

সরকার বর্তমানে এই প্রকল্পে বার্ষিক  ৬.৬ শতাংশ হারে সুদ  নির্ধারণ করেছে।  আপনি কোনও যৌথ অ্যাকাউন্টে এই প্রকল্পে ৯ লক্ষ টাকা জমা দিলে  ৬.৬ শতাংশ বার্ষিক সুদের হার অনুসারে, আপনার বছরে মোট সুদ হবে ৫৯,৪০০ টাকা। তাহলে  প্রতি মাসে  সুদের পরিমাণ প্রায় ৪৯৫০ টাকা হবে। একই সময়ে, একক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে ৪,৫০,০০০ টাকার বিনিয়োগে, আপনি প্রতি মাসে ২৪৭৫ টাকা পাবেন।

যারা প্রতি মাসে একটি নির্দিষ্ট আয় করতে চান তাদের জন্য পোস্ট অফিসে মাসিক আয় স্কিম খুব উপকারী। অবসর গ্রহণের পরে যারা মোটা অঙ্কের টাকা পেতে চান তাদের জন্য এই স্কিমটি বেশ ভাল। প্রতিমাসে মোটা অঙ্কের বিনিয়োগের মাধ্যমে নির্দিষ্ট আয় করা যায়।