পুলিশ কর্মী এক মেয়েকে কোলে তুলে নিয়ে গেল থানায়, আর তারপরের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় হল ভাইরাল…

আজ আমি আপনাদের সামনে যে খবরটি দিতে চলেছি সেটি সত্যিই একটি গুরুত্বপুর্ন খবর। আজ আপনাদের সামনে এমন একটি ভিডিওর কথা আমি তুলে ধরবো যেটি এই বর্তমান সমাজে প্রচন্ড ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। এই ভিডিওটি ভাইরাল হবার অন্যতম কারণ হলো এই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে একজন পুলিশ কর্মী এক মহিলাকে টানতে টানতে থানায় নিয়ে যাচ্ছেন। আপনারা সকলে এটা নিশ্চয়ই জানেন যে আগেকার দিনে ভারতবর্ষের সমাজে মহিলারা প্রচণ্ড ভাবে অত্যাচারিত হতো কারণ তখনকার দিকে মহিলাদের সুরক্ষার জন্য বিশেষ কোনো আইন গঠন হয়নি।তাই আগেকার দিনে মহিলাদের ওপর অত্যাচারের ঘটনা দেখে আমাদের মতন মানুষদের অত্যন্ত খারাপ লাগত এবং অনেক সময় গা শিউরে উঠতো।

তাই সরকার মহিলাদের ওপর এই সব অত্যাচার থেকে মহিলাদের সুরক্ষার দেওয়ার জন্য দেশে কঠোর থেকে কঠোরতম আইম আনেন। তাই এখনকার দিনে বর্তমান সমাজে আমাদের দেশের মহিলারা নিজেদের অত্যন্ত সুরক্ষিত মনে করেন তাই তারা সুরক্ষিতভাবে স্বাধীনভাবে দেশে বসবাস করতে পারেন। কিন্তু অনেক সময় এটা দেখা যায় যে যারা আইনের রক্ষক তারাই পালন করছেন ভক্ষকের ভূমিকা। তাই তারা বিনা কারণে অনেক সময় দেশের মহিলাদের সুরক্ষার বদলে তাদের উপর অত্যাচার করেন। এর ফলে অনেক সময় আমাদের দেশের আইনকানুন লজ্জিতবোধ করেন। আসুন আজ সে রকমই একজন পুলিশের ভূমিকা আপনাদের সামনে তুলে ধরি যে নিজেকে আইনের রক্ষক হিসাবে পরিচয় দিলেও আসলে ভক্ষকের ভূমিকা পালন করেছেন।

বর্তমান সময়ে দেশের বিভিন্ন সোশ্যাল মাধ্যমে এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেটা দেখে দেশের সাধারণ মানুষ হতচকিত হয়ে গিয়েছেন। এই ভিডিওতে যেটা দেখা যায় সেটি আমাদের সামনে তুলে ধরছি। এই ভিডিওতে দেখা যায় যে এক ভদ্রমহিলা কিছুদিন আগে থানার গেটের বাইরে এসে কিছুটা রাগান্বিত অবস্থায় ছিলেন কিন্তু সেই সময় তাকে সাহায্য করার জন্য আশেপাশের মানুষজন কেউ এগিয়ে আসেনি। সেই সময় এক পুলিশ কর্মী তার সামনে আসেন এবং তাকে কাঁধে করে তুলে নিয়ে থানার ভেতরে চলে যান এবং ভেতরে যাওয়ার পরে বাইরের গেটটি লাগিয়ে দেন। আর এই ব্যাপারে উঠছে প্রশ্ন কেন দেশে মহিলা পুলিশ থাকা সত্ত্বেও একজন পুরুষ পুলিশ এসে মহিলাকে গ্রেফতার করলেন। কারণ আমাদের দেশের আইন এটা বলা আছে যে একজন মহিলা পুরুষই একমাত্র মহিলাদের গায়ে হাত দিতে পারেন। এই পুরো ভিডিও টি আপনাদের দেখার জন্য দেওয়া হল।
#অগ্নিপুত্র

 

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close