মোদি সরকার সংসদে আনতে চলেছেন নতুন বিল, ক্রিপ্টোকারেন্সি নিষিদ্ধ করতে উদ্যোগী দেশ

ইতিমধ্যে দেশে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছিল। কখনো দেশ এটিকে অবৈধ ঘোষণা করে দেয় কখনো আবার দ্বিমত পোষণ করে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। তবে ক্রিপ্টোকারেন্সিকে সরাসরি নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে এবার ভারত সরকার সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে বিল আনতে চলেছেন।

অর্থসংক্রান্ত সংসদীয় কমিটিতে এর আগে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে যে আলোচনা হয়েছিল, সেখানে নিষেধাজ্ঞার পরিবর্তন নিয়ন্ত্রণের পরামর্শ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু এবার শীতকালীন অধিবেশনে এই ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পূর্ণ প্রত্যাহার করার কথা বলবে কেন্দ্রীয় সরকার।

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া আগে থেকেই জানিয়েছিল, ডিজিটাল মুদ্রা নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি পরিকাঠামো এবং কমিটি তৈরি করতে হবে। চলতি বছরের মার্চে সুপ্রিম কোর্টে এই বিষয়টি উঠেছিল। সেখানে আর বি আই এর সার্কুলারকে মান্যতা দেওয়া হয়নি। ব্যাংক এবং অন্যান্য সংস্থা যাতে এই কারেন্সি ব্যবহার না করে, তার জন্য এই কথা বলা হয়েছিল।

তাই এবার ডিজিটাল কারেন্সি বিল, ২০২১- এ এই ক্রিপ্টোকারেন্সিকে নিয়ন্ত্রনে রাখার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া চিরকালই চেয়েছিলেন’ ভারত যাতে নিজস্ব ডিজিটাল মুদ্রা তৈরি করে। এখনো ব্যক্তিগতভাবে দেশে ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উচ্চপদস্থ আধিকারিক এর সঙ্গে বৈঠক করেছেন এবং কিভাবে সমস্যার সমাধান হবে সেই বিষয়ে আলোচনা করেছেন তিনি।

সম্প্রতি বিটকয়েনের বিজ্ঞাপনে দেখতে পাওয়া যায় বিভিন্ন ফিল্মি তারকাদের। ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগের ওপর সহজ এবং বেশি রিটার্নের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। এই ধরনের মুদ্রা গুলিকে বিভ্রান্তকর মুদ্রা দাবি করার পাশাপাশি বিনিয়োগ কারীদের প্রলুব্ধ করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে বলে অভিযোগ রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার।