পাকিস্তানের সমস্ত চেষ্টায় জলে চলে গেল, মোদীকে সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান দিলেন আমিরশাহির যুবরাজ

আমরা সবাই জানি কাশ্মীর থেকে 370 ধারা তুলে নিয়েছে ভারত সরকার।ঠিক এমনই একটি পরিস্থিতিতে আরব আমিরশাহির মত ইসলামির রাষ্ট্রকে পাশে পেতে চাইছে পাকিস্তান। কিন্তু পাকিস্তানের সেই আশায় জল ঢেলে দেয়। আরব আমিরশাহিতে সে দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পেলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী। এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান ‘ অর্ডার অব জায়েদ’ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল আরব অমিতশাহির।

ঠিক এর মাঝামাঝি সময়ে কাশ্মীর থেকে 370 ধারা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল মোদী সরকার। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর কোনো প্রভাব পড়েনি ভারত ও আরব আমিরশাহির দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ‘অর্ডার অব জায়েদ’ সম্মানে সম্মানিত করলেন যুবরাজ মোহম্মদ বিন জায়েদ আল নাহান। সংযুক্ত আরব আমিরশাহির জনক হলেন শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহান। প্রসঙ্গত তার জন্মবার্ষিকীতে মোদিকে সম্মানিত করল সংযুক্ত আরব আমিরশাহির।

অপরদিকে সংযুক্ত আরব আমিরশাহির সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি টুইট করে বলেন,’ অর্ডার অফ জায়েদ’ পুরস্কার পেলাম । এটা আমার ব্যক্তিগত পুরস্কার নয়। ভারতীয় সংস্কৃতি ও আদর্শের জন্যই আমার এই সম্মান প্রাপ্তির হয়েছে। আমার এই পুরস্কার 130 কোটি ভারতবাসীকে উৎসর্গ করছি। ‘ এদিন সংযুক্ত আরব আমিরশাহির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহানের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রসঙ্গত ভারত সরকার যবে থেকে কাশ্মীরের 370 ধারা তুলে নিয়েছিল তবে থেকে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি কে পাশে পেতে চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন দেশগুলির বৈঠকে ভারতকে পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহি। 370 ধারা তুলে নেওয়ার পর আরব আমিরশাহি জানিয়েছিলেন, এটি সম্পূর্ণ ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

আঞ্চলিক বৈষম্য দূরীকরণ ও ওখানকার পরিস্থিতি উন্নতি করার জন্য এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।