আগামী রবিবার দিন 22 শে মার্চ সারা দেশজুড়ে জনতা কার্ফুর ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর…

পুরো পৃথিবী আজ করোনা ভাইরাসের নামে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে আর এবার এই করোনা ভাইরাসের জেরে বিশ্ব যে পরিমাণে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ও এত পরিমাণে ক্ষতি হয়নি। গত দুমাস ধরে নাগরিকরা সারা বিশ্বে এরকম এক ঘটনা দেখছে যার জেরে ভাইরাসের প্রকোপ থেকে প্রাণে বাঁচতে আপ্রাণ লড়াই করে চলেছে সকলে।আর এবার ভারত ও সেই পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে জাতির উদ্দেশ্যে আজ প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী রাত 8 ঘটিকায় ভাষণ দিলেন।

যেখানে তিনি এই ভাইরাসের প্রকোপ থেকে দেশের 130 কোটি জনগণকে বাঁচাতে আরও কয়েক সপ্তাহ সময় চেয়ে নিলেন, জানিয়ে দিলেন জরুরী কোন কারণ ছাড়া বাড়ি থেকে বের হবার কোনো প্রয়োজন নেই। যতটা পারবেন বাড়ি থেকে কাজ করার চেষ্টা করবেন এ কথা আজ জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়ে মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এরই সাথে সকল দেশবাসীকে সতর্ক করলেন এই মরণ ভাইরাস নিয়ে।

আর তারই সাথে রবিবার দিন জনতা কারফিউ ঘোষণা করলেন তিনি। করোনা ভাইরাস এর মোকাবেলা করতে দেশের 130 কোটি দেশবাসীকে ঘরে থাকা পরামর্শ দিলেন আর তার সাথে অভ্যাস তৈরি করে আগামী রবিবার দিন 22 শে মার্চ জনতা কারফিউ পালনের বার্তা দিলেন। সেই দিন সকাল 7 টা থেকে রাত্রি নটা পর্যন্ত সকল দেশবাসীকে জনতা কারফিউ পালনের অনুরোধ জানালেন তিনি। তারই সাথে জানিয়ে দিলেন এই দিন যাতে কোনো নাগরিকই ঘরের বাইরে বা রাস্তায় যেন না বেরোয়।

Advertisements

জরুরী কোন কারণ ছাড়া বাইরে না বেরোনোর পরামর্শ দিলেন তিনি।দেশের সকল জনগণের কাছে তিনি অনুরোধ করলেন সকলেই যাতে এই বার্তা পালন করেন। তবে হঠাৎ করে কেন করা হচ্ছে এই জনতা কারফিউ?তার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান যে 22 শে মার্চ জনতা কারফিউ সাফল্য ও অভিজ্ঞতা আমাদের আসন্ন চ্যালেঞ্জের মোকাবেলা করতে সাহায্য করবে আগামী দিনে। আর এর জন্য রাজ্য সরকার গুলিকে এই নির্দেশ পালন করার অনুরোধ করেন তিনি। তারই সাথে সকল যুব সংগঠন, খেলাধুলার সংগঠন, এনসিসি, এনএসএস এর কাছে রবিবার দিন জনতা কারফিউ কে সফল করার আবেদন জানান। তবে এখানেই শেষ নয় তিনি আরো বলেন যেভাবে ভাইরাসের প্রভাব দেশজুড়ে পড়েছে তার জেরে সামাজিক দূরত্ব বোঝায় রাখা অত্যন্ত জরুরী, আর এই ভাইরাস থেকে সংকল্প বা সংযমের দ্বারাই বাঁচতে পারা যাবে। অবশেষে তিনি দেশের সকল জনগণের উদ্দেশ্যে বললেন নিজেকে সুস্থ রাখুন, পরিবেশকে সুস্থ রাখুন তবে এই জগত ও সুস্থ থাকবে।

Advertisements