সোফা ছেড়ে সবার সাথে সাধারণ চেয়ারেই বসলেন মোদী, বিদেশে প্রধানমন্ত্রীর এমন আচরণে মুগ্ধ তামাম নেটদুনিয়া..

আজকে সকালেই রাশিয়া সফর থেকে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এবং সেখানে গিয়ে তিনি যে সরলতার পরিচয় দিয়ে এসেছেন তা এখনো সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আজ রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল ওই ভিডিওটি পোস্ট করে লিখেন, আরো একবার প্রধানমন্ত্রীর সরলতার পরিচয় পেলাম আমরা। তিনি আরো লিখেন, কতটা সাধারণ মানের জীবন যাপন কাটাতে পছন্দ করেন তিনি সেটি এই ভিডিও দ্বারা স্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়ে যাচ্ছে।

এই ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে, দেশ-বিদেশের একাধিক প্রতিনিধির সঙ্গে ফটোসেশন করতে দেখা গিয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে। এবং এখানে প্রধানমন্ত্রী বিশেষ অতিথি হিসেবে এসেছিলেন তাই তার জন্য সোফার বন্দোবস্ত করা হয়েছিল। আর বাকিদের জন্য ছিল চেয়ারের ব্যবস্থা। তবে প্রধানমন্ত্রীর সেই কক্ষে ঢোকার পরেই তার জন্য সংরক্ষিত সোফাটি সরানোর নির্দেশ দেন। এবং পরে অন্যান্য প্রতিনিধিদের জন্য যেমন চেয়ার আয়োজন করা হয়েছিল সেই রকম চেয়ারে বসেই ফটোসেশন করেন তিনি।

এমনি অবাক করে দেওয়ার মতন ঘটনা এর আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অনেকবার করেছেন। প্রথা ভাঙার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি একেবারে দক্ষ, সেটি স্বাধীনতা দিবসের ভাষণ হোক বা একসাথে ফটো সেশন ই হোক না কেন। এর আগেও স্বাধীনতা দিবসের দিনে নিজের ভাষণ দেওয়ার পর বাচ্চাদের ভিড়ে মিশে গিয়েছিলেন তিনি। বিদেশের মাটিতে প্রধানমন্ত্রী এমন সরলতা দেখে মুগ্ধ গোটা দেশ। প্রশংসায় পঞ্চমুখ দেশের নেটিজেনরাও। কেউ বলেন লাজাবাব, আবার কেউ বলছে তার সরলতা দেখে মুগ্ধ হলাম।

আবার অনেকে বলেন, আমাদের একটি বিনম্র এবং সংযমী প্রধানমন্ত্রী রয়েছেন যিনি বরাবর এই মাটিতে পা রেখে চলেন। প্রসঙ্গত দু’দিনের সফরে রাশিয়া যান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এবং সেখানে গিয়ে পূর্বাঞ্চল অর্থনৈতিক ফোরামে অংশগ্রহণ করেন তিনি। তারপর বৈঠক করে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে। শুধু তাই নয় এবার রাশিয়ার মাটিতে দাঁড়িয়ে সেই দেশের পূর্ব প্রান্তে উন্নতির জন্য 100 কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার ঘোষণা করেন তিনি।

Related Articles

Close