নতুন খবরবিশেষরাজনৈতিক

ভারতকে চোখ রাঙালে ভারত ছেড়ে কথা বলবে না,নাম না করে চীনকে কড়া হুঁশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর..

আজ অর্থাৎ রবিবার সকালে মন কি বাত অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই মন কি বাত অনুষ্ঠানে নাম না করে চীনকে কড়া হুঁশিয়ারি দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেছেন যে, যারা লাদাখে ভারতীয় ভূপৃষ্ঠের দিকে চোখ তুলে তাকিয়ে ছিল তাদের কে কড়া জবাব দিয়েছি আমরা। তবে তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে তেমনভাবে কিছু বলেননি। আপনাদের জানিয়ে দিন শনিবার রাতে সারা দেশজুড়ে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে 5 লক্ষতে।

এই অনুষ্ঠানে তিনি কী কী বিষয় নিয়ে বলেছেন সেগুলো নীচে সংক্ষেপে উল্লেখ করা হলো  –
1. দেশবাসীর মধ্যে প্রায় সবাই বলছেন এই বছরটা যেন তাড়াতাড়ি পেরিয়ে যায় কারণ এটা একটা অশুভ বছর।
2. এই বছরের প্রথম দিক থেকেই শুরু করোনার দাপট তারপর আবার এসে পড়ল আমফান। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন জায়গায় ছোট ছোট ভূমিকম্প হচ্ছে। এর ওপর আবার হয়েছে প্রতিবেশী দেশের সাথে দ্বন্দ্ব। এত কিছু সমস্যা থাকা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, খারাপ পরিস্থিতি মাঝে মাঝে আসতেই পারে তা বলে আমরা এবছর কে খারাপ বলবো না। তিনি আরও বলেছেন যে, গত ছয় মাস ধরে দেশের পরিস্থিতি সংকটজনক অবস্থায় থাকলেও পরের 6 মাস যে এরকম যাবে তার কোনো মানে নেই।

3. লাদাখ সীমান্তে ভারতের মাটির দিকে যারা চোখ তুলে তাকিয়ে আছে তাদেরকে কড়া জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনা। ভারত যেমন বন্ধুত্ব রক্ষা করতে জানে তেমনি আবার শত্রুপক্ষকে কড়া জবাব দিতেও জানে। ভারতীয় জওয়ানেরা প্রমান করে দিয়েছেন যে তারা ভারতের মাটিতে কোনো দাগ পড়তে দেবেন না।লাদাখের সংঘর্ষে শহীদ জাওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে সারা দেশবাসী। ভারত যখন আত্মনির্ভর হয়ে উঠবে তখনই একমাত্র তাদেরকে প্রকৃত সম্মান জানানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

4. সম্প্রতি আমরা ভারতের যুব সম্প্রদায়ের জন্য ভারতের ঐতিহ্যবাহী ইনডোর খেলাগুলি কে আকর্ষণীয় চমকপ্রদক করে তোলার চেষ্টা করছি। এবং সেই গুলির সঙ্গে যুক্ত জিনিস সরবরাহকারী স্টার্ট আপগুলি ব্যাপক ভাবে লাভজনক হবে এর ফলে।
5. লকডাউনের ফলে কৃষি ক্ষেত্রে এমন অনেক জিনিস ছিল যা পুরোপুরি আটকে গিয়েছিল। কিন্তু এবার আনলক ওয়ান এর পর কৃষকেরা তাদের যেমন ইচ্ছে যাকে খুশি ফসল বিক্রি করতে পারবেন। এছাড়াও তাদের অধিক ঋণ পাওয়ার বিষয়টিও বলেছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button