টেক নিউসনতুন খবরবিশেষ

বিপদে রয়েছে 30 লাখ অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারী দের ছবি ও কল রেকর্ডের তথ্য, মিলেছে 400 টির বেশী ত্রুটি..

বর্তমান দিনে প্রায় প্রত্যেকটি ব্যক্তির কাছেই থাকে স্মার্টফোন। আর এই স্মার্টফোন থেকে আমরা এখন যাবতীয় কাজ করতে পারি। ব্যাংকিং এর সুবিধা থেকে আরো অন্যান্য কাজ আমরা স্মার্টফোনের মাধ্যমে করতে পারি বাড়িতে বসে। কিন্তু এখন যে খবরটি আপনাদের সামনে বলবো তা স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। জানা গিয়েছে, সারা বিশ্বের মধ্যে প্রায় 30 লক্ষ অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীদের তথ্যকে বিপদে ফেলে দিয়েছে এই ফোনে ব্যবহৃত কোয়ালকম চিপ।

চেকপয়েন্ট সিকিউরিটি রিসার্চরাই এই তথ্য দিয়েছেন। এনারা এর মধ্যে 400 টি ভুল খুঁজে পেয়েছেন।আপনাদের জানিয়ে দি, বাজারে যতটা পরিমাণে স্মার্টফোন রয়েছে তার মধ্যে প্রায় 80 শতাংশ বা তারও বেশি স্মার্টফোনে এই কোয়ালকম চিপ ব্যবহৃত করা হয়। গুগোল, স্যামসং, এলজি এবং শাওমি আরো অন্যান্য কোম্পানির দামি দামি মোবাইলে এই চিপ ব্যবহার করা হয়। অবশ্য এখন কম দামি মোবাইলেও চিপসেট থাকে।চেকপয়েন্ট রিসার্চরা DCP চিপ রাসার্চরা পরীক্ষা করার সময় মোট 400 টি ত্রুটিযুক্ত কোড খুঁজে পেয়েছেন।

 


এর ফলে ওই চিপ যুক্ত স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁস হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন রিসার্চাররা। এই ত্রুটিযুক্ত কোডগুলি দ্বারা হ্যাকাররা কোন প্রকার ইন্টারঅ্যাকশন ছাড়াই যেকোনো স্মার্ট ফোনের সাহায্যে নজরদারি চালাতে পারে শুধু তাই নয় এই ত্রুটিযুক্ত কোডগুলির দ্বারা হ্যাকাররা ইউজারদের মোবাইলে থাকা ছবি, ভিডিও, কল রেকর্ডিং, GPS এবং লোকেশন এর ডেটা এক্সেস করতে পারে। এমনকি হ্যাকাররা সার্ভিস অ্যাটাক করে মোবাইল ফ্রিজও করে নিতে পারে। এছাড়াও আরও একটি ভয়ানক কাজ হেকাররা করতে পারে যেটি হল, আপনার মোবাইল ম্যালওয়্যার এবং ম্যালিসিয়াস কোড প্রবেশ করিয়ে দিতে পারে।

এরপরে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী বুঝতেই পারবে না যে তার ফোন হ্যাক হয়েছে। মোবাইল ব্যবহারকারী চাইলেও এই কোড গুলো ডিলিট করতে।এই ত্রুটি সামনে আসার পর কোয়ালকমের তরফ থেকে সর্তকতা জারি করা হয়েছে। সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে খুব শিগগিরই নতুন আপডেটের মাধ্যমে এই ত্রুটি গুলিকে দূর করা হবে। এছাড়াও সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, চেক পয়েন্টে রিসার্চাররা যে ত্রুটি খুঁজে পেয়েছেন সেগুলিকে আমাদের তরফ থেকে পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। আমাদের কাছে এখনো পর্যন্ত সেরকম কিছু প্রমান নেই যে হ্যাকাররা এর সুবিধা নিয়েছে।চেকপয়েন্ট এর তরফ থেকে সমস্ত মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের মোবাইল আপডেট করে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন।

Related Articles

Back to top button