ফ্রী ইন্সুরেন্স সহ পাঁচটি বড় সুবিধার লাভ পেতে চলেছেন পিএফ গ্রাহকেরা, বিস্তারিত জানতে

পিএফ অ্যাকাউন্ট এর টাকা জমা থেকে আরও বিশেষ কিছু সুবিধা আসতে চলেছে। এতদিন পিএফ অ্যাকাউন্টে শুধুমাত্র ফ্রী ইন্স্যুরেন্সের সুবিধা পাওয়া যাচ্ছিল। তবে এবার থেকে এর সাথে মিলবে আরো কিছু বিশেষ সুযোগ-সুবিধা । সমস্ত কর্মচারীদের পিএফ এর সুবিধা দিয়ে থাকে EPFO । প্রত্যেক মাসের সমস্ত কর্মচারীর বেতন পাওয়ার পর সেখান থেকে একটি নির্দিষ্ট অংকের টাকা কেটে নিয়ে পিএফ অ্যাকাউন্টে জমা পড়ে। অবসরপ্রাপ্ত জীবনে কর্মচারীদের সুরক্ষিত ভবিষ্যতের জন্য এটি একটি অত্যন্ত ভরসাযোগ্য পদ্ধতি।

ফ্রী- ইন্সুরেন্স এর সুবিধা–

আফটার রিটারমেন্ট কর্মচারীদের পিএফ অ্যাকাউন্ট এর জমানো টাকা ভবিষ্যতের জন্য কাজে আসে। তবে শুধু অবসর জীবনের পরই নয়, পিএফ অ্যাকাউন্ট এর টাকা থেকে আরও নানান রকম সুবিধা পেয়ে থাকে কর্মচারীরা।পিএফ অ্যাকাউন্ট এর ক্ষেত্রে কর্মচারীরা পাবেন ফ্রী ইন্সুরেন্স এর সুবিধা। যখনই কোন কর্মীর দ্বারা পিএফ অ্যাকাউন্ট খোলা হবে সেই কর্মী তখন সেই অ্যাকাউন্টের জন্য ইনস্যুওয়ার্ড হয়ে যাবেন। এছাড়া সেই কর্মী ৬ লক্ষ টাকার বীমার সুবিধা পাবেন ।

সার্ভিস চলাকালীন কোন কর্মী মৃত্যু হলে তার নমিনীকে ৬ লক্ষ টাকা দিয়ে দেওয়া হবে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে এরকমই জানানো হয়েছে । সুতরাং সমস্ত কর্মীদেরই যাতে কোন অসুবিধা না হয় সেদিকে যথেষ্ট নজর রাখছে কেন্দ্র সরকার এবং সংস্থাগুলি।

ট্যাক্সে মিলবে ছাড়:–

পিএফ একাউন্ট এর ক্ষেত্রে কর্মীরা পেয়ে থাকেন ট্যাক্সে ছাড়। সুতরাং কোনো কর্মী যদি নিজের ট্যাক্স এর উপর ছাড় চান তাহলে পিএফ একাউন্ট এর থেকে বিকল্প আর কিছু হয়না। তবে বলা হচ্ছে নতুন ট্যাক্স সিস্টেমে এই ছাড় পাওয়া যাবেনা। উল্লেখ্য বলা হচ্ছে যে কর্মচারীরা ইনকাম ট্যাক্স ৮০ সি ধারা অনুযায়ী নিজেদের সেলারি তে যে পরিমাণে ট্যাক্স দিতে হয় তার ১২ শতাংশ সেভিংস করতে পারবেন।

অবসরের পর মিলবে পেনশন-

এছাড়া নতুন সিস্টেম অনুযায়ী অবসরের পরে হোল্ডার পাবেন পেনশন। কারণ পিএফ অ্যাকাউন্টে যে পরিমাণ এর টাকা জমা দেয়া হচ্ছে তার থেকে ৮.৩৩ শতাংশ টাকা টান্সফার করে দেওয়া হবে পেনশন খাতে । যা পরে অবসর-জীবনে পেনশন স্কিম হিসেবে পাওয়া যাবে।যেকোনো কর্মীরা অবসর জীবনের পেনশন হলো একটা বড় ভরসার জায়গা । সুতরাং এক্ষেত্রে যদি পেনশন খাতে টাকা বেশি জমা পড়ে তাহলে সুবিধা সেই কর্মীরই।

মিলবে নিষ্ক্রিয় অ্যাকাউন্টে সুদ–

২০১৬ র নিয়ম অনুযায়ী তিন বছরেরও বেশি সময় ধরে পড়ে থাকা পুরনো পিএফ অ্যকাউন্ট সুদ দেয়া হয় । এর আগে এই রকম ব্যবস্থা ছিল না তিন বছর ধরে নিষ্ক্রিয় অ্যাকাউন্টে সুদ দেবার সিস্টেম চালু হয়েছে ২০১৬ থেকেই।

যেকোনো সময় তোলা যাবে টাকা–

এছাড়া পিএফ অ্যাকাউন্টে সবথেকে বড় সুবিধা হল আপনি যেকোনো সময় প্রয়োজনে টাকা তুলে নিতে পারবেন । এর জন্য অবসর জীবন পর্যন্ত কোনো কর্মীকে অপেক্ষা করতে হবে না।