দেশনতুন খবর

ফের দাম কমলো পেট্রোল-ডিজেলের! সাধারণ মানুষের মধ্যে এলো স্বস্তির ছায়া।

জীবাশ্ম জ্বালানি হল আমাদের দৈনন্দিন জীবনে একটি খুবই প্রয়োজনীয় দ্রব্য । বিগত কয়েক মাস আগে পেট্রোল ডিজেলের মূল্য এতটাই বৃদ্ধি পেয়েছিল যে সাধারণ অর্থাৎ মধ্য ও নিম্নবিত্ত শ্রেণীর মানুষদের নানারকম সমস্যার শিকার হতে হচ্ছিল । কেন্দ্রীয় সরকারের সকল প্রচেষ্টায় পেট্রোলের মূল্য কে আবার সীমার মধ্যে আনা গেছে। যদিও বিগত কয়েকদিনে পেট্রোলের মূল্য একটু একটু করে অনেকটাই নীচে নেমেছে। পেট্রোলের ও ডিজেলের দাম আরো এক ধাপ কমে এলো , এটি থাকবে আজকের আমাদের আলোচ্য বিষয়।

শুক্র বারের তুলনায় শনিবার এর ডিজেল ও পেট্রোলের মূল্য হ্রাস পেয়েছে । দেশের মেট্রো শহরগুলিতে ৩০পয়সা পেট্রোলের দাম এবং ৩২ পয়সা ডিজেলের দাম কমেছে। ৬৯.৫৫ টাকা থেকে কমে দিল্লিতে পেট্রোলের মূল্য দাঁড়িয়েছে ৬৯.২৬ টাকা । ডিজেলের দাম এক ধাক্কা কমায় বর্তমানে দিল্লিতে ডিজেলের মূল্য দাঁড়িয়েছে ৬৬.৩২ টাকা । বর্তমানে দিন দিন তেলের মূল্য হ্রাস পেতে থাকায় অনেকটাই স্বস্তির নিঃশ্বাস নিচ্ছেন সাধারণ মানুষ।
ইতিমধ্যে , শুধু দিল্লিতে নয় সমস্ত মেট্রো সিটি গুলোতে দাম কমেছে । কলকাতায় পেট্রোলের মূল্য দাঁড়িয়েছে ৭১.৩৭ টাকা এবং ডিজেলের মূল্য ৬৫. ০৯ টাকা । দাম কমেছে চেন্নাই ও নয়ডাতে। এই কমতে থাকা মূল্যের জন্য বিশেষজ্ঞরা এতটা বলতে পারেন, নতুন বছরের সূচনার আগে হয়তো আর পেট্রোলের দাম এখন বাড়বে না।

এই দফায় দফায় পেট্রোল কমার পিছনে হাত রয়েছে মূলত কেন্দ্রীয় সরকারের। কেন্দ্রীয় সরকার পেট্রোল-ডিজেলের আমদানির ওপর কর কে কমিয়ে দেওয়ার জন্যই জ্বালানির দাম কমে চলেছে। অর্থমন্ত্রীর প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, “কেন্দ্রীয় সরকার যদি পেট্রোল ও ডিজেলের উপর পুরো কর ছাড় দেয় এবং ডিলারদের কমিশন বাদ দেওয়া হলে, সাধারণ মানুষ মাত্র ৩৪ টাকা লিটারে পেট্রোল পাবেন। যদিও এই জ্বালানির উপর কর ছাড় দেওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিপুল পরিমাণ ক্ষতির ভার উঠাতে হচ্ছে।
সাধারণ মানুষের শুধু অপেক্ষায় আছে সেই দিনটির যখন পেট্রোলের দাম ৩৪ টাকা লিটার এসে দাঁড়াবে, এবং এই প্রতিশ্রুতি যদি কেন্দ্রীয় সরকার বাস্তবায়িত করতে পারে তাহলে নিশ্চিত জনগণ ভারতীয় জনতা পার্টিকে আরো বেশি সমর্থন করবে।

Related Articles

Back to top button