দেশনতুন খবরবিনোদনবিশেষ

‘জয় হিন্দ’ বলায় প্রিয়ঙ্কার বিরুদ্ধে পিটিশন পাকিস্তানে….

পুলওয়ামা হামলার পরে ভারতীয় বায়ু সেনার পাকিস্তান কে জবাবি এয়ার স্ট্রাইক হামলার জন্য দেশ প্রশংসায় পঞ্চমুখী হয়েছে৷ বায়ুসেনার সাহসিকতার প্রশংসায় বলিউডের তারকারাও প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন৷ সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রিয়ঙ্কা চোপড়া ভারতীয় বায়ুসেনাকে অভিনন্দন জানিয়ে জয় হিন্দ লেখেন৷ তবে পাকিস্তান এই বিষয়টিকে ভাল চোখে দেখেনি৷ তার জেরে বিতর্কে অভিনেত্রী প্রিয়ঙ্কা চোপড়া। রাষ্ট্রপুঞ্জের শুভেচ্ছাদূত (ইউনিসেফ-এর গুডউইল অ্যাম্বাস্যাডর) হিসাবে তাঁকে সরানোর দাবি উঠল পাকিস্তানে। রাষ্ট্রপুঞ্জ এবং ইউনিসেফ-এর কাছে সেই মর্মে পিটিশনও দায়ের হয়েছে ইতিমধ্যে। তাতে স্বাক্ষর করেছেন কয়েক হাজার পাকিস্তানি নাগরিক। পাকিস্তানের এই পিটিশনে জইশের কোনও উল্লেখ নেই৷ গত 14 ই ফেব্রুয়ারি জইশের আত্মঘাতী হামলার জেরে দেশের 40 জন সিআরপিএফ জওয়ান শহিদ হয়েছে৷

এই ঘটনার জেরে দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি ঘটে৷
যার প্রভাব ভারত পাকিস্তানের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতেও দেখা যায়৷ বিতর্কের সূত্রপাত গত সপ্তাহে। পুলওয়ামায় হামলার প্রত্যাঘাতে পাকিস্তানে ঢুকে জঙ্গিঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেয় ভারতীয় বায়ুসেনা। আর তারপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় বায়ুসেনাকে অভিনন্দন জানান অনেকেই। যার মধ্যে অন্যতম ছিলেন প্রিয়ঙ্কা। নিজের টুইটার হ্যান্ডলে তিনি লেখেন, ‘জয় হিন্দ।#ইন্ডিয়ান আর্মড ফোর্সেস।’ এরকম ভাবে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে ভারতীয় সেনার গুণগান করতে দেখে, রুষ্ট হন পাকিস্তানের বুদ্ধিজীবী মহল।ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হিসাবে প্রিয়ঙ্কাকে সরানোর দাবি তুলে www.avaaz.org ওয়েবসাইটে পিটিশন দায়ের করেন তাঁরা।বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে ইতিমধ্যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে, তবে প্রিয়ঙ্কা চোপড়া এবং ইউনিসেফের তরফে এখনও পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

তবে সেনাবাহিনী তে চিকিত্সক হিসাবে কর্মরত অশোক চোপড়া এবং মধু চোপড়ার কন্যা প্রিয়ঙ্কা, এর আগেও একাধিকবার ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রশংসায় মুখ খুলেছেন।

Related Articles

Back to top button