চাপ বাড়ল পাকিস্তানের! সন্ত্রাসবাদীদের মদত দেওয়ায় রাষ্ট্রসঙ্ঘে ইমরান খানকে জোর সাওয়াল ভারতের

আফগানিস্থানে তালিবানি সন্ত্রাসের জেরে চাপানউতোর চলছে বিশ্বের সমস্ত দেশে। তালিবানদের প্রকাশ্যে সমর্থন করেছে পাকিস্থান। এর ফলে বিভিন্ন দেশ পাকিস্তানের প্রতি তির্জক নজর হেনেছে । কিছুদিন আগে নিজের দেশকে বাঁচাতে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা সরব হয়েছিল । এই দিন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ অধিবেশনে জম্মু এবং কাশ্মীর প্রসঙ্গ উঠায় প্রকাশ্যে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে তুলোধোনা করল ভারত। সন্ত্রাস বাহিনীর প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে সাহায্য করে আসছে পাকিস্তান কিন্তু পাকিস্তানের এই ব্যবহার চুপচাপ মেনে নেওয়ার মতো নয় রাষ্ট্রসংঘের ভারতের ফার্স্ট সেক্রেটারি স্নেহা দুবে বলেন এখন সময় এসেছে জবাব দেওয়ার। তাঁর কথায়, “তাই সমস্ত সদস্য দেশগুলি জানে পাকিস্তানের মোটিভ কি।সন্ত্রাসবাদীদের প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে আশ্রয়, সাহায্য এবং সমর্থন দিয়ে আসছে পাকিস্তান।

পাকিস্তান এমন একটি দেশ যারা সর্বসমক্ষে সন্ত্রাসবাদীদের সমর্থন করে। এখানে সন্ত্রাসবাদীরা আশ্রয়ের ,সাহায্য, প্রশিক্ষণ, ফান্ডিং সবকিছু পায়। “শুধু ভারতবর্ষ নয় অন্যান্য কয়েকটি দেশও তালিবানদের সরাসরিভাবে পাকিস্তানের সমর্থন করা ভালো চোখে দেখছে না। যদিও পাকিস্তানিরা একথা কখনো স্বীকার করে না যে তারা তালিবানদের সাথে আছে ।এর আগে যখন ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট সফর বাতিল করে দেয় সেই প্রসঙ্গে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা বলে আমাদের দেশ সব থেকে বেশি সুরক্ষিত।

Advertisements

রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ অধিবেশনে এইদিন ভার্চুয়ালি ভাষণ দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তিনি বলেন আমরা সবসময়ই চাই ভারতের সঙ্গে শান্তি বজায় রাখতে। ইমরান খানের কথায়, “জম্মু এবং কাশ্মীর এর বিরোধের অবসান এর উপর নির্ভর করছে দক্ষিণ এশিয়ার স্থায়ী শান্তি। ” তবে পাকিস্তানের একথা মানতে নারাজ ভারত। অধিবেশনে ভারত প্রকাশ্যেই বলে, “জম্মু এবং কাশ্মীর এর যে সমস্ত অঞ্চল অবৈধভাবে পাকিস্তান দখল করে আছে অবিলম্বে সেই সমস্ত অঞ্চল পাকিস্তানের ছেড়ে দেওয়া উচিত।

Advertisements

জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখ কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিল এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। ” ফার্স্ট সেক্রেটারি স্নেহা দুবে আরো বলেন,” আগস্ট ফোরামে ভাবমূর্তি নষ্ট করতে চাইছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান । সেই জন্যই তিনি ইচ্ছাকৃতভাবে অধিবেশনে আভ্যন্তরীণ বিষয় তুলে ধরেছেন। ” ইমরান খানকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “বারবার মিথ্যা কথা বলা হচ্ছে ।” তিনি অত্যন্ত দুঃখের সাথে আরও বলেন, “এটি প্রথমবার নয় যে পাকিস্তান ভারতের সম্পর্কে মিথ্যা ও বিদ্বেষ মূলক তথ্য প্রচার করছে ।

ভারতের বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক তথ্য প্রচার করার জন্য পাকিস্তান রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্লাটফর্ম এর অপব্যবহার করছে। বর্তমানে পাকিস্তান বিশ্বে অত্যন্ত করুণ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে ।আর সেই জন্যই নজর ঘোরানোর জন্য এই সমস্ত প্রচেষ্টা। ” মূলত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কে কটাক্ষ করে স্নেহা দুবে আরো বলেন , “পাকিস্তানে সন্ত্রাসবাদীরা বাধাহীনভাবে ঘোরাফেরা করে। আর এদের সমস্ত কাজের মদত দিয়ে আসে দেশ। “