ফের বড় ঝটকা! আন্তর্জাতিক আদালতে স্বীকারোক্তি পাক আইনজীবীর বলল কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের পোক্ত প্রমাণ নেই …

এখনো পর্যন্ত আন্তর্জাতিক মঞ্চে জম্মু কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের কাছে শুধুমাত্র হতাশা উপহার হিসেবে মিলেছে।এমনকি জম্মু-কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ইস্যু নিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতের স্মরন হয়েছিল ইমরান খানের সরকার। কিন্তু সেখানে গিয়ে কোন লাভ হবে না বলে জানিয়ে দিলেন আন্তর্জাতিক আদালতে কুলভুষণ যাদব মামলায় পাকিস্তানের আইনজীবী খাওয়ার কুরেসি। তার মতে কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য সঠিক প্রমাণ নেই। আর প্রমান না থাকলে আন্তর্জাতিক আদালতে গিয়ে সুবিচার মেলা অসম্ভব।

পাকিস্তানের একটি টিভি চ্যানেলের অনুষ্ঠানে গিয়ে খাওয়ার কুরেশি বলেন,” এখানে মানুষ যে পরিস্থিতি দেখছেন আন্তর্জাতিক স্তরে তা কিন্তু মোটেও তেমনটা নয়। জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে ভারত পাকিস্তানের যে অবস্থান রয়েছে তা অন্য জায়গায় ভিন্ন ভিন্ন দৃষ্টিতে দেখা হতে পারে। তাদের দৃষ্টিতে জম্মু কাশ্মীর ভারত পাকিস্তানের অবিচ্ছিন্ন অংশ।” তিনি আরো বলেন, কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনের মজবুত প্রমাণ নেই পাকিস্তানের কাছে। ফলে আন্তর্জাতিক আদালতে এ নিয়ে মামলা চালানো বেশ শক্ত।


প্রসঙ্গত ভারতীয় নাগরিক কুলভূষণ যাদব কে বে- আইনিভাবে গ্রেফতার করে ফাঁসির সাজা শুনিয়েছিল পাকসেনা আদালত। এরপর ভারতের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতের দ্বারস্থ হয়। এ মামলায় পাকিস্তানের হয়ে লড়েছিলেন খাওয়ার কুরেশি এবং অপরদিকে ভারতের হয়ে লড়েছিলেন আইনজীবী হরিশ সালভে। কার্যত এই মামলায় শেষ পর্যন্ত ভারতেরই জয় হয়। এরপর কাশ্মীর থেকে 370 ধারা তুলে নেওয়ার পরেই ইসলামাবাদ চটে গেছে। এ নিয়ে আন্তর্জাতিক স্তরে যাওয়ার পরেও পাকিস্তানের হাতে সাফল্য আসেনি।

এমনকি ইসলামিক দেশগুলোও ইসলামাবাদের সঙ্গ দেয়নি। এরপর চীনের ডাকে সাড়া দিয়ে অ-আনুষ্ঠানিক রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয় রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গে। সেখানে শুধুমাত্র চীন ছাড়া আর কেউ পাকিস্তানের পাশে দাঁড়ায় নি। জি-7 সম্মেলনের ফাঁকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কিছুক্ষণ বৈঠক করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি। এবং বৈঠক শেষ হওয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট কে পাশে বসিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী জানান, কাশ্মীর হলো ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ভারত-পাকিস্তান আলোচনা করে সমস্যার সমাধান হয়েছে অন্য কাউকে এর মধ্যে ঢুকে কষ্ট করতে হবে না।

Related Articles

Close