আরো একবার রাতের ঘুম উড়তে চলেছে পাকিস্তানের, এবার ইজরাইলের কাছ থেকে ৮০০০ অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে চলেছে ভারত..

কিছুদিন আগে পাকিস্তানের বালাকোটের হামলায় ইজরায়েলি বোমা যে চমক দেখিয়েছিল তাতে বোঝা যাচ্ছিল ইজরাইলের সামরিক শক্তি কতটা উন্নত।মোদি সরকারের ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ইসরাইলের সাথে ভারতের সম্পর্ক অনেক দৃঢ় হয়েছে। ভারতের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক ভালো হওয়ার দরুন ইজরায়েল তার সমস্ত আধুনিক প্রযুক্তি ও তথ্য ভারতের সঙ্গে শেয়ার করছে।এবার ইজরায়েলের প্রকাশিত এক সংবাদ মাধ্যমে রিপোর্ট অনুযায়ী জানতে পারা যায় ৮০০০ স্পাইক অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল কিনতে চলেছে ভারত।

এই রিপোর্ট অনুযায়ী বলা হচ্ছে ইসরাইলের কাছ থেকে ওই মিসাইল কিনতে চলেছে ভারত।এছাড়াও ইতিমধ্যে দুই দেশের মধ্যে এই সংক্রান্ত যাবতীয় চুক্তি হয়েছে বলে জানতে পার গেছে। এই সংস্থার দাবি করে ভারতের সঙ্গে ইসরাইলের মিশাল কিনা চুক্তি ৫৫০ মিলিয়ন ডলারের হয়েছে।তবে এখনো পর্যন্ত ইসরাইলের বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে এই রিপোর্ট সম্পর্কে কোন মন্তব্য করা হয়নি।‘আরুৎজ শেভা’ নামে ওই সংবাদপত্রের দাবি, ইজরায়েল ভারতে প্রত্যেক বছর প্রচুর পরিমাণ অস্ত্র রপ্তানি করে।


আপনাদের বলে রাখি প্রতিবছর প্রায় ১০০ কোটি ডলারের অস্ত্র আসে ভারতে।আর গত বছরের এপ্রিল মাসে দুই দেশের মধ্যে ২০০ কোটি ডলারের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল।যার মধ্যে রয়েছে সার্ফেস-টু-এয়ার মিসাইল, লঞ্চার ও কমিউনিকেশন টেকনোলজি ।আরো আপনাদের বলে রাখি ইসরাইলের সেনাবাহিনী এই স্পাইক মিসাইল ব্যবহার করে।এই স্পাইক মিসাইল ভূমি, আকাশ ও সমুদ্রের উৎক্ষেপণ করতে সক্ষম।এছাড়া এই মিসাইল ৩০ কিলোমিটার দূরে গিয়ে আঘাত ও আনতে পারে। অন্যদিকে ভারত ও ইজরায়েল যৌথ উদ্যোগে একটি লং রেঞ্জ সার্ফেস টু এয়ার মিসাইল তৈরি করছে, যা দুই দেশের নৌবাহিনী ব্যবহার করবে পরবর্তীকালে। ভারত ও ইসরাইলের এরকম চুক্তিতে রীতিমতো চিন্তিত রয়েছে পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা।